সুন্দরবনে বনদুস্য বাহিনী দাপিয়ে বেড়াচ্ছে : জেলে-বাওয়ালীরা পেশা বদলাতে বাধ্য হচ্ছে


591 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
সুন্দরবনে বনদুস্য বাহিনী দাপিয়ে বেড়াচ্ছে : জেলে-বাওয়ালীরা পেশা বদলাতে বাধ্য হচ্ছে
মে ২৮, ২০১৬ ফটো গ্যালারি শ্যামনগর
Print Friendly, PDF & Email

এস কে সিরাজ,শ্যামনগর:
পশ্চিম সুন্দরবনের সাতক্ষীরা রেঞ্জে ডজন খানিক অস্ত্রধারী বনদুস্যরা সারা সুন্দরবন দাপিয়ে বেড়াচেছ। চাঁদাবাজি, অপহরণ, লুটপাট অব্যহত রাখায় সুন্দরবনের কমরত জেলা অতিষ্ট হয়ে উঠেছে।দাবীকৃত মুক্তিপণের টাকা না দিতে পারায় অনেক জেলেকে জীবন দিতে হচ্ছে বনদুস্যদের হাতে।থামছে না বনদুস্যদের চাঁদাবাজি আর মুক্তিপনের দাবীতে অপহরন।যার কারনে অনেকেই বাপ দাদার পেশা জেলেজীবি থেকে পেশা বদল করে অন্য পেশায় যেতে বাধ্য হচ্ছে।

সুন্দরবনে ব্যপক ভাবে বিচারন করছে,অস্ত্রধারী ফজলু,রেজাউল, আলিম,কাদের মাষ্টার,জাহাগীর,নয়া ভাই, সহ ডজন বাহিনী। এদের মধ্যে ফজলু বাহিনীর সদস্য সংখ্যা সব চেয়ে বেশী। এ বনদুস্যদ বাহিনীরা সুন্দরবনের চুনকুড়ি, খোলশেবুনিয়া,চালতে বাড়ীয়া,কলাগাছিয়া,মালন্ঝ সহ সুন্দরবনের অভয়ারণ্য  এলাকার পাশাপাশি জেলে পল্লী এলাকা গুলোতে বিচারন করে থাকে।বন বিভাগ সহ অন্য দপ্তরকে উপেক্ষা করে পুরো সুন্দরবন জুড়ে বনদুস্য বাহিনীরা দখল নিয়ে দাপিেয় বেড়াচ্ছে। বনদুস্যরা অপহরন আর চাঁদাবাজির পাশাপাশি সুন্দরবনের মহা মুল্যবান সম্পদ রয়েল বেংগল টাইগার ও মায়াবী হরিন শিকার করার অভিযোগ ও রয়েছে তাদের বিরুদ্ধে।অধিকাংশ বাহিনীদের বাড়ী সাতক্ষীরা জেলায় বলে জানা গেছে। জনবল আর অস্ত্র নাথাকার অভিযোগে বন বিভাগ বরাবরই নিরব।সাতক্ষীরা রেঞ্জের সহকারী বনসংরক্ষক সোয়েব খান বনদুস্যদের তৎপরতার কথা স্বিকার বলেন, বন বিভাগের আয়োজনে প্রায় সময় যৌথ বাহীনি সুন্দরবনে অভিযান অব্যহত রেখেছে।এছাড়া বন বিভাগের নিজস্ব নিয়মিত টহলতো আছেই।###