সুন্দরবন থেকে অস্ত্র ও গোলা-বারুদের ভান্ডার উদ্ধার : বনদস্যু তালার শাহীনুর গ্রেফতার


684 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
সুন্দরবন থেকে অস্ত্র ও গোলা-বারুদের ভান্ডার  উদ্ধার : বনদস্যু তালার শাহীনুর গ্রেফতার
অক্টোবর ২৭, ২০১৫ খুলনা বিভাগ ফটো গ্যালারি
Print Friendly, PDF & Email

ওয়াহেদ-উজ-জামান, খুলনা ব্যুরো :
সুন্দরবন থেকে বনদস্যুদের অস্ত্র ও গোলা-বারুদের ভান্ডার উদ্ধার করা হয়েছে। র‌্যাব-৬’র একটি দল অভিযান চালিয়ে সুন্দরবনের কয়রা উপজেলার বাদুর ঝুলি খাল এলাকা থেকে বিপুল পরিমান অস্ত্র ও গুলি উদ্ধার করে। উদ্ধারকৃত অস্ত্রের সংখ্যা ২৩ এবং ১ হাজার ৫৩১ রাউন্ড গুলি। এ সময় র‌্যাব
বন ও জলদস্যু ‘ইলিয়াস বাহিনী’র সদস্য মোঃ শাহীনুর সরদার ওরফে শাহীনকে (৩৪) গ্রেফতার করে। মঙ্গলবার র‌্যাব-৬ খুলনার লচনচরাস্থ সদর দপ্তরে সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে এ তথ্য জানানো হয়। এর আগে সোমবার রাতভর অভিযান চালায় র‌্যাব। এটি র‌্যাব-৬ কর্তৃক সুন্দরবনের এ যাবতকালের সবচেয়ে বড় অভিযান।

SAMSUNG CAMERA PICTURES

SAMSUNG CAMERA PICTURES

সকাল ১১টায় সংবাদ সম্মেলনে র‌্যাব-৬’র অধিনায়ক অতিরিক্ত ডিআইজি খোন্দকার রফিকুল ইসলাম জানান, গোপন খবরের ভিত্তিতে র‌্যাব-৬ জানতে পারে খুলনার কয়রা থানাধীন সুন্দরবন অঞ্চল খুলনা রেঞ্জ এলাকার বাদুর ঝুলি খাল এলাকায় কতিপয় জলদস্যু অস্ত্র-শস্ত্র নিয়ে অবস্থান করছে। এ সংবাদের ভিত্তিতে জলদস্যুদের গ্রেফতার ও অবৈধ অস্ত্র-গুলি উদ্ধারের লক্ষ্যে লেঃ কমান্ডার এম. মাহ্ফুজুল ইসলাম’র নেতৃত্বে সোমবার র‌্যাব-৬’র একটি বিশেষ দল বাদুর ঝুলি খাল এলাকায় অভিযান চালায়। অভিযানকালে জলদুস্য ইলিয়াস বাহিনীর সাথে র‌্যাব-৬’র সদস্যদের মুখোমুখি প্রায় ১০ মিনিট গুলি বিনিময় হয়। এক পর্যায়ে জলদস্যুরা পিছু হটে গভীর জঙ্গলে পালিয়ে যায়। এ সময় র‌্যাব সদস্যরা ইলিয়াস বাহিনীর সদস্য জলদস্যু মোঃ শাহীনুর সরদারর ওরফে শাহীনকে গ্রেফতার করা হয়। সে থানা সাতক্ষীরার তালা উপজেলার মুড়োগাছা গ্রামের মৃত. ফারুক সরদারের ছেলে।  শাহীনের কাছ থেকে একটি এইট শুটার গান ও ৪ রাউন্ড বন্দুকের গুলি উদ্ধার করা হয়। পরে তার দেওয়া তথ্য অনুযায়ী সুন্দরবনের গহীন জঙ্গলে মাটির নিচে লুকিয়ে রাখা জলদস্যু ইলিয়াসের বিপুল পরিমান অস্ত্র ও গুলি উদ্ধার করা হয়। উদ্ধারকৃত অস্ত্রের মধ্যে ৭টি ডাবল ব্যারেল বন্দুক, ৯ টি সিঙ্গেল ব্যারেল বন্দুক, ৫টি পয়েন্ট টুটু এসএ রাইফেল, তুরস্কের তৈরি ১টি এইট শুটার গান ও ১টি থ্রী নট থ্রী রাইফেল এবং পয়েন্ট টুটু রাইফেলের গুলি ১ হাজার রাউন্ড, বন্দুকের গুলি-৪৩৭ রাউন্ড, থ্রী নট থ্রী রাইফেলের গুলি-৮৫ রাউন্ড ও ৭.৬২ রাইফেলের গুলি ৯ রাউন্ড।

SAMSUNG CAMERA PICTURES

SAMSUNG CAMERA PICTURES

সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়, সুন্দরবনসহ বিস্তীর্ণ উপকূলীয় এলাকায় বনদস্যু, জলদস্যুদের দমনের লক্ষ্যে র‌্যাব, পুলিশ, কোস্টগার্ড, বিজিবি ও বন বিভাগের সমন্বয়ে একটি টাস্কফোর্স কাজ করছে। র‌্যাব-৬, খুলনা, সাতক্ষীরা ও বাগেরহাট জেলার অন্তর্গত সুন্দরবন এলাকায় জলদস্যু ও বনদস্যুদের বিরুদ্ধে নিয়মিত অভিযান পরিচালনা করে আসছে। পশ্চিম সুন্দরবন এলাকায় বর্তমানে দুর্ধর্ষ দস্যু ইলিয়াছ বাহিনী, রাজু বাহিনী, জাহাঙ্গীর বাহিনী, আনারুল বাহিনী ও আমির আলী বাহিনীর তৎপরতা রয়েছে। এ বাহিনীগুলোর বিরুদ্ধে র‌্যাব-৬ এর অভিযান অব্যাহত রয়েছে। সুন্দরবনসহ উপকূলীয় এলাকা বনদস্যু ও জলদস্যু মুক্ত না হওয়া পর্যন্ত এ অভিযান অব্যাহত থাকবে থাকবে বলেও উল্লেখ করা হয়।

সংবাদ সম্মেলনে কোম্পানী কমান্ডার (সিপিসি-১) লেঃ কমান্ডার এম মাহফুজুল ইসলাম ও এ্যাডজুটেন্ট (সিনিয়র এএসপি) মোহাম্মদ হারুন অর রশিদসহ অন্যান্য কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।