সেপটিক ট্যাংক থেকে মোবাইল তুলতে গিয়ে দুই যুবকের মৃত্যু


151 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
সেপটিক ট্যাংক থেকে মোবাইল তুলতে গিয়ে দুই যুবকের মৃত্যু
জুন ১১, ২০১৯ জাতীয় ফটো গ্যালারি
Print Friendly, PDF & Email

অনলাইন ডেস্ক ::

রংপুর জেলার পীরগঞ্জ উপজেলায় টয়লেটের সেপটিক ট্যাংকে পড়ে যাওয়া মোবাইল ফোন উদ্ধার করতে নেমে দুলু মিয়া ও এনামুল হক নামে দুই যুবকের মৃত্যু হয়েছে। শাহিন নামে অপরজনকে গুরুতর অসুস্থ অবস্থায় উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে।

সোমবার রাতে উপজেলার রামনাথপুর ইউনিয়নের বড়ঘোলা গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। অফিসার ইনচার্জ সরেস চন্দ্র ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেন।

পারিবারিক ও প্রতিবেশি সূত্রে জানা গেছে, বড়ঘোলা গ্রামের সমেস উদ্দিনের ছেলে দুলু মিয়া সোমবার রাতে আনুমানিক সাড়ে ৮টার দিকে টয়লেটে যায়। এ সময় অসাবধানতাবশত তার হাতে থাকা মোবাইল ফোনটি টয়লেটে পড়ে যায়। ফোনটি উদ্ধারে একটি বাঁশ বেয়ে সেপটিক ট্যাংকে নামেন দুলু মিয়া।

দুলু মিয়ার উপরে উঠে আসতে বিলম্ব হলে প্রতিবেশী আজহার আলীর কলেজ পড়ুয়া ছেলে কারমাইকেল বিশ্ববিদ্যালয় কলেজের ছাত্র এনামুল হকও ট্যাংকে নেমে পড়েন। দু’জনের উঠে আসার জন্য কোন সাড়া শব্দ না পেয়ে শাহিন নামে আরেক প্রতিবেশি যুবকও সেখানে নেমে পড়ে।

তিন যুবকের উপরে উঠে আসায় বিলম্বে স্থানীয়রা ফায়ার সার্ভিসকে খবর দেয়। পরে ফায়ার সার্ভিস কর্মীরা ঘটনাস্থলে এসে তিনজনকে উদ্ধার করেন। এর মধ্যে কলেজ ছাত্র এনামুল হক সেপটিক ট্যাংকে শ্বাসকষ্টে এবং দুলু মিয়াকে হাসপাতালে নেয়ার পথে মারা যায়। অপর যুবক শাহিন মিয়াকে পীরগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে আশংকাজনক অবস্থায় ভর্তি করা হয়। একই গ্রামের ২ যুবকের মৃত্যুতে ওই গ্রামে শোকের ছায়া নেমে এসেছে।