স্থুলতা প্রতিরোধে অ্যালোভেরা


118 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
স্থুলতা প্রতিরোধে অ্যালোভেরা
আগস্ট ২৮, ২০১৯ ফটো গ্যালারি স্বাস্থ্য
Print Friendly, PDF & Email

অনলাইন ডেস্ক ::

অ্যালোভেরা বা ঘৃতকুমারী একটি জনপ্রিয় ওষধি গাছ যা হাজার হাজার বছর ধরে বিভিন্ন ক্ষেত্রে ব্যবহৃত হয়ে আসছে। ত্বকের সমস্যা সমাধানে এটি ব্যবহৃত হলেও আরও অন্যান্য ক্ষেত্রে এটি ব্যবহার করে উপকার পাওয়া যায়। রোগ প্রতিরোধে এর জুড়ি মেলা ভার। এটি ওজন কমায়। শরীর রাখবে দূষণমুক্ত। আর নিয়মিত নির্দিষ্ট পরিমাণে পান করুন এই পাতার রস।

হজমশক্তি বাড়িয়ে, শরীরের অতিরিক্ত জলের ভাগ কমিয়ে ওজন কমায় অ্যালোভেরা। শরীরকে দূষণ মুক্তও করে। শুরুতে অল্প পরিমাণ অ্যালো জুস খেয়ে দেখুন। কোনও সমস্যা না হলে প্রতিদিন পানির সঙ্গে এই রস মিশিয়ে খেলে উপকার পাবেন।
খেয়াল করে দেখেছেন নিশ্চয়ই এখনকার প্রসাধনী পণ্যে অ্যালোভেরা ব্যবহৃত হচ্ছে। কারণ, অ্যালোভেরার মতো ত্বকের যত্ন নিতে আর কেউ পারে না। সরাসরি ত্বকে অ্যালোভেরা লাগাতে চাইলে পানি দিয়ে মুখ ধুয়ে অল্প অ্যালোভেরা নিয়ে ত্বকে মাসাজ করুন। কিছুক্ষণ রেখে ফেসওয়াশ দিয়ে ধুয়ে নিন মুখ। একই ভাবে এই পাতার রস মিশিয়ে নিতে পারেন ফেস প্যাক, টোনারে। নিয়মিত ব্যবহার করলে ব্রণের হামলা কমবে। ত্বকের শুষ্কভাব পালাবে। কমবে সানবার্ন, সংক্রমণ, কালচে ছোপ সহ ত্বকের যাবতীয় সমস্যা।

চুলে প্রতিদিন অ্যালোভেরা লাগিয়ে কিছুক্ষণ রেখে ধুয়ে নিন। হারানো জেল্লা ফিরবে। চুলের জন্য স্পেশাল মাস্ক তৈরি করতে পারেন। নারকেল তেলের সঙ্গে সমপরিমাণ এই পাতার রস মিশিয়ে নিন ভালো করে। তারপর সেটি সারা রাত চুল আর স্ক্যাল্পে লাগিয়ে রেখে দিন। পরের দিন শ্যাম্পু করে নিন। সপ্তাহে দুবার এই মাস্ক ব্যবহার করলে চুলের জন্য ভালো।

প্রাকৃতিক উপায়ে সৌন্দর্য বাড়াতে আর শরীর সুস্থ রাখতে নিয়মিত খান এই পাতার রস। তবে তাড়াতাড়ি উপকার পেতে প্রথম দিনেই একগাদা করে খেয়ে নেবেন না। ধীরে ধীরে পরিমাণ বাড়ান অ্যালোভেরা জেলের।