স্লগ ওভারে ‘স্মার্ট ক্রিকেট’ চান টাইগারদের ব্যাটিং কোচ


448 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
স্লগ ওভারে ‘স্মার্ট ক্রিকেট’ চান টাইগারদের ব্যাটিং কোচ
সেপ্টেম্বর ৪, ২০১৮ খেলা ফটো গ্যালারি
Print Friendly, PDF & Email

অনলাইন ডেস্ক ::
গায়ের জোরে ছক্কা মেরে ম্যাচ বের করে ফেলবো! এই নীতি না নিয়ে স্মার্ট ক্রিকেট খেলার দিকে মনোযোগ দেওয়ার কথা বললেন বাংলাদেশের ব্যাটিং পরামর্শক নেইল ম্যাকেঞ্জি। সীমিত ওভারের ক্রিকেটে বাংলাদেশের ব্যাটিংয়ের দুর্বলতা স্লগ ওভারের ব্যাটিং। ইনিংসের শেষদিকে দ্রুতগতিতে রান তুলতে পারে না বাংলাদেশের ক্রিকেটাররা। আবার ঠিকঠাক রান তুললেও শেষে ভুল ব্যাটিংয়ের কারণে হেরে যায় টাইগাররা। এশিয়া কাপে এই জায়গায় উন্নতির দিকে জোর দিচ্ছেন দক্ষিণ আফ্রিকার সাবেক ব্যাটসম্যান ম্যাকেঞ্জি।

ব্যাটিং কোচ নেইল ম্যাকেঞ্জির দর্শন হলো, স্লগ ওভারে রানের চাকা সচল রাখতে বলে জোরে হিট করার দরকার নেই। দক্ষতা প্রয়োগ করে ক্রিকেটীয় শট খেলেই দ্রুত রান তোলা যায়। সোমবার মিরপুর শেরে বাংলা স্টেডিয়ামে বিকেল থেকে অনুশীলন করেছে বাংলাদেশ দল। সেখানে ব্যাটিং কোচ ম্যাচের পরিস্থিতি বুঝে ব্যাটিংয়ে জোর দিয়েছেন। আর অনুশীলনের বড় জায়গাজুড়ে ছিল স্লগ ওভারের ব্যাটিং।

স্লগ ওভারে ব্যাটিং নিয়ে টাইগারদের ব্যাটিং কোচ বলেন, ‘কৌশল প্রয়োগ করে ভালো অবস্থানে থাকা যায়। আমাদের শেষে রান তোলার ক্ষেত্রে ওয়েস্ট ইন্ডিজের ব্যাটিং ফর্মুলা অনুসরণ করলে চলবে না। শট খেলার দক্ষতা অর্জন করে আমরা তাদের সঙ্গে রান তোলার প্রতিযোগিতা করতে পারি। ইনিংসের শেষদিকে চারজন ফিল্ডার বৃত্তের ভেতরে থাকে। এটা মাথায় রেখে আমাদের কাভার, পয়েন্ট ও মিড উইকেটের ওপর দিয়ে মারতে হবে। মাঠের ৪৫ ডিগ্রি অ্যাঙ্গেলটা ব্যবহার করতে (লং অফ, লং লেগ) হবে।’

বাংলাদেশ দলেও বিগ হিটার আছে উল্লেখ করেন দক্ষিণ আফ্রিকার এই সাবেক ব্যাটসম্যান বলেন, ‘আমাদের দলে কিন্তু কয়েকজন বিগ হিটারও আছে। সিপিএলে যেমন মাহমুদুল্লাহ ১১ বলে ২৮ রান করেছে। ব্যাটিং কৌশলে একটু বদল এনে যে কেউ ভালো হিটার হতে পারে। ওভারে ছয় রানের লক্ষ্যে ব্যাট করলে বড় শট না খেলে এক-দুইয়ের দিকে মনোযোগ দিতে হবে। বাউন্ডারি মারতে চাইলে কাভার বা মিড উইকেটে ভরসা করতে হবে। আবার যদি ওভারে ১২ রান তাড়া করতে হয়, অবশ্যই বড় শট খেলতে হবে।’

তিনি আরও বলেন, ‘আমার মনে হয়, বড় শট খেলার ক্ষেত্রে আমরা অন্যদের সঙ্গে প্রতিযোগিতা করতে পারি। কিন্তু শুধু শট খেলার থেকে বেশি দক্ষতা সম্পন্ন শট খেলার দিকে মনোযোগ দিতে হবে, প্রতিভা কাজে লাগাতে হবে। যেমন ওয়েস্ট ইন্ডিজের ক্রিকেটাররা দুই বল মিস করার পর পরপর দুটি ছক্কা মারে। আমি সেখানে বাংলাদেশের ক্রিকেটারদের ব্যাট থেকে তিনটি চারের শট দেখলে খুশি হবো। আমাদের দরকার ১২ রান। তা আমরা দারুণ ক্রিকেটীয় শট খেলে তুলতে পারি। বড় ছয় মারতে গিয়ে হারার পক্ষে না আমি।’

এছাড়া ম্যাকেঞ্জি মনে করেন, বিশ্বের অধিকাংশ ওয়ানডে দলের মধ্যে এখন দূরত্ব কম। আর তাই হার-জিতের মিমাংশ ওভারের শেষ ওভারে বা শেষ বলেই হবে ধরে নিতে হবে। আর সেজন্য অনুশীলনে চাপের আবহ তৈরি করে প্রস্তুতি নিতে হবে। যাতে করে বোলার এবং ব্যাটসম্যানরা চাপের সঙ্গে পরিচিত হয়ে ওঠে। বোলারদের ক্ষেত্রে তিনি মাঠের ফিল্ডার সাজানো এবং নিজের সেরা বলগুলো ঠিকঠাক প্রয়োগ করার দিকে মনোযোগ দেওয়ার কথা বলেন।