হজমের সমস্যা দূর করবে ৫টি অসাধারণ খাবার


553 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
হজমের সমস্যা দূর করবে ৫টি অসাধারণ খাবার
ফেব্রুয়ারি ১, ২০১৬ ফটো গ্যালারি স্বাস্থ্য
Print Friendly, PDF & Email

ভয়েস অব সাতক্ষীরা ডটকম ডেস্ক :
পাচনতন্ত্র শরীরের একটি গুরুত্বপূর্ণ অংশ এবং এর সাথে সম্পর্কিত যেকোনো সমস্যাই অনেক অস্বস্তির কারণ হতে পারে। এর প্রাথমিক কাজ হল আপনার শরীরের অত্যাবশ্যক পুষ্টি শোষণ করা এবং বজ্র পদার্থ থেকে পরিত্রাণ পেতে সাহায্য করা।

আমেরিকান জাতীয় ডায়াবেটিস ইনস্টিটিউটে, পৌষ্টিক এবং কিডনি রোগে, প্রায় ৬০-৭০ মিলিয়ন আমেরিকান কোন না কোন পরিপাক সমস্যায় ভোগে। কিছু সাধারণ হজমের সমস্যা বদহজম, গ্যাস, অম্বল, ডায়রিয়া, কোষ্ঠকাঠিন্য, এসিড রিফ্লাক্স, পাকস্থলীর আলসার ইত্যাদি এগুলো অন্তর্ভুক্ত।

কিছু সাধারণ বিষয় যেমন- কম খাওয়া, ব্যায়ামের অভাব, নিরুদন, অত্যাধিক ধূমপান, মাত্রাতিরিক্ত মদ খাওয়া, মানসিক চাপ, ঘুমের এবং পুষ্টির ঘাটতি ইত্যাদি পরিপাক সমস্যার প্রধান কারণ। অনেক ধরনের হজম সমস্যা আছে তাই এক্ষেত্রে সঠিক চিকিৎসা নেয়া অপরিহার্য। যাইহোক, আপনি কিছু সাধারণ হজমের সমস্যা ঘরোয়া পদ্ধতিতে এবং জীবনধারা পরিবর্তনের মাধ্যমে করতে পারেন। চলুন এই বিষয়ে জেনে নেয়া যাক।
১। আদা

হজম উন্নতি এবং হজম সমস্যা এড়ানোর জন্য আপনি আপনার খাদে আদা অন্তর্ভুক্ত করতে পারেন। এটা জারক রস এবং এনজাইম প্রবাহ সঠিকভাবে সরবরাহ করে এবং খাদ্য হজমে সহায়তা করে। এটি বমি, পেট ফাঁপা, বদহজম, ব্লৌটিং এবং ডায়রিয়া হ্রাস করার জন্য কার্যকর। উপরন্তু, এটা ব্যাকটেরিয়ারোধী, বীজনাশক এবং এতে বিরোধী প্রদাহজনক বৈশিষ্ট্য আছে। যা হজমের সমস্যা প্রতিরোধে সাহায্য করে।

প্রতিদিন ২-৩ বার আদা চা খাবেন। চা বানাতে ১ চামচ আদা কুচিয়ে দেড় কাপ গরম পানিতে দিবেন। ১০ মিনিট সিদ্ধ করবেন। এরপর আদা কুচি বের করে তাতে মধু মিশিয়ে আদা চা উপভোগ করতে পারেন।
এছাড়া দুই চামচ আদার রস এবং ১ চামচ মধু ১ কাপ পানিতে মিশিয়ে তা প্রতিদিন ২ বার খেতে পারেন।
হজম শক্তি বাড়াতে খাবারের পর অল্প করে আদা চা বানাতে পারেন।

২। মৌরি বীজ

মৌরি বীজ হজম শক্তি বাড়াতে সাহায্য করে। আপনি অম্বল, বদহজম ও কম পেট অম্লতার জন্য এটি ব্যাবহার করতে পারেন। এই বীজ সাধারণভাবে বিরক্তিকর পেটের সমস্যার সঙ্গে যুক্ত অন্ত্রের আক্ষেপ এবং ব্লটিং থেকে ত্রান প্রদান করে।

আপনার খাওয়া হজম করতে খাওয়ার পর ১ চামচ মৌরি বীজ চাবিয়ে খেতে পারেন।
হজম শক্তি বাড়াতে মৌরি চা খান অথবা এক গ্লাস পানিতে আধা চামচ মৌরি গুড়া মিশিয়ে দৈনিক ২ বার খেতে পারেন। মৌরি চা বানাতে ১ চামচ মৌরি গুড়া করে এক কাপ পানিতে ৫ মিনিট রেখে তারপর তা পান করেত পারেন।

৩। এলোভেরা

এলোভেরায় জোলাপ (বিরেচক ওষুধ) বৈশিষ্ট্য আছে যা পাচন তন্ত্রে সঠিক কার্যকারিতা সমর্থন করে। উপরন্তু, এলোভেরায় অ্যান্টি ব্যাকটেরিয়াল, রোগাদির, বিরোধী প্রদাহজনক এবং পরিপাক নালীর জ্বালা ও প্রশমিত করার বৈশিষ্ট্য আছে।

পানি অথবা কমলার জুসে এলোভেরার জেল ২ টেবিল চামচ মিশাতে হবে।
এরপর ব্লেন্ডারে তা ভালোভাবে ব্লেন্ড করতে হবে।
প্রতিদিন সকালে খালি পেটে তা খেতে হবে।

৪। হলুদ

সাধারণ হজম সমস্যার চিকিৎসার জন্য আরেকটি ঔষধি হচ্ছে হলুদ। কারকিউমিন হলুদের সক্রিয় উপাদান পিত্ত মুক্তিতে সাহায্য করে। এটি হজম ও লিভার ফাংশন উন্নত করে। এছাড়াও বিরোধী প্রদাহজনক সম্পত্তি গ্যাস্ট্রোইনটেস্টাইনাল নালীর প্রদাহ কমাতে সাহায্য করে। ২০১৩ সালের একটি গ্যাস্ট্রোএনালোজি বিশ্ব জার্নালে প্রকাশিত একটি অধ্যয়নে দেখা যায় উভয় কার্মিক এবং জৈব পাচক রোগে একটি কার্যকর চিকিৎসামূলক পন্থা হচ্ছে হলুদ।
৫। ওটমিল

ওটমিলে উচ্চ ফাইবার থাকে যা অন্ত্রের স্বাস্থ্য প্রচার করে। ফাইবার অন্ত্রের নিয়মানুবর্তিতা বজায় রাখতে সাহায্য করে এবং কোষ্ঠকাঠিন্য রোধ করে। ওটমিল অম্বল এবং বমি বমি ভাবের উপসর্গ কমাতে পারে। উপরন্তু, ওটমিল একটি কম চর্বিযুক্ত খাদ্য হওয়াতে আপনি তা ডায়রিয়ায় ভুগছেন এমন সময়ও খেয়ে হজম করতে পারবেন।

একটি সুস্থ পাচনতন্ত্রের জন্য দিনের শুরু আপনি এক বাটি ওটমিল খেয়ে করতে পারেন। এর সাথে ফল ও বাদাম মিশিয়ে এর পৌষ্টিক মান আরও উন্নত করতে পারেন।
এছাড়াও আপনি আপনার হজম উন্নত করতে ওটমিলের আটা এবং ওটমিল কুকিজ খেতে পারেন।