হত্যার হুমকি দিয়ে টিকটক বানাচ্ছে মিয়ানারের সেনা-পুলিশ


132 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
হত্যার হুমকি দিয়ে টিকটক বানাচ্ছে মিয়ানারের সেনা-পুলিশ
মার্চ ৫, ২০২১ প্রবাস ভাবনা ফটো গ্যালারি
Print Friendly, PDF & Email

অনলাইন ডেস্ক ::

অভ্যুত্থানবিরোধী বিক্ষোভকারীদের হত্যার হুমকি দিয়ে টিকটকে ভিডিও বানাচ্ছে মিয়ানমারের সেনা বাহিনী ও পুলিশ সদস্যরা। ভিডিওতে অস্ত্র হাতে হাজির হচ্ছে তারা।

সহিংসতা ছাড়ায় এ সংক্রান্ত এমন কিছু ভিডিও এরই মধ্যে সরিয়ে নেওয়া হয়েছে বলে জনিয়েছে টিকটক কর্তৃপক্ষ। বিষয়টি উদ্বেগ বাড়িযেছে গবেষকদেরও।

শুক্রবার এক প্রতিবেদনে এসব তথ্য জানিয়েছে সংবাদ মাধ্যম রয়টার্স।

ডিজিটাল অধিকার সংস্থা মিয়ানমার আইসিটি ফর ডেভেলপমেন্ট (এমআইডিও) বলছে, তারা এমন প্রায় ৮০০ ভিডিও পেয়েছে যেগুলো সেনা শাসকের সমর্থন সংক্রান্ত। এই ভিডিওগুলো সেনাবাহিনীর তাণ্ডবের সময় আন্দোলনকারীদের উত্তেজিত করেছে।

এমআইডিওর নির্বাহী পরিচালক হিটাকে হিটাকে আউং বলেন, অ্যাপে সেনা বাহিনী ও পুলিশের পোশাক পরা ব্যক্তিদের কয়েকশ’ হুমকির ভিডিও আছে। এটি একটি কৌশল।

সামরিক জান্তার পক্ষ থেকে এ বিষয়য়ে কোনও মন্তব্য নিতে পারেনি রয়টার্স।

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে থাকা একটি ভিডিও বিশ্লেষণ করে দেখা গেছে, সেনা বাহিনীর পোশাক পরা এক ব্যক্তি অস্ত্র হাতে হাজির হয়েছেন ক্যামেরার সামনে। তিনি বলছেন, আমি তোমার মুখে গুলি ছুড়ব। আসল বুলেট ব্যবহার করব।

ওই ভিডিওতে লোকটি বলছিলেন, আজ সারারাত আমি শহরে ঘুরে বেড়াব। যাকে দেখব তাকেই গুলব করব। কেউ শহীদ হতে চাইলে আমি তার ইচ্ছা পূরণ করব।

টিকটকের এক বিবৃতিতে বলা হয়েছে, সহিংসতা ও ভুল তথ্য ছাড়ায় এমন কোনও কনটেন্ট প্রকাশ করা নিয়ে আমাদের নীতিমালা রয়েছে। মিয়ানমারের কিছু ভিডিও সরিয়ে ফেলা হয়েছে, আরও সরানো হচ্ছে।

গত ১ ফেব্রুয়ারি সামরিক অভ্যুত্থানের পর থেকেই মিয়ানমারজুড়ে অস্থিরতা বিরাজ করছে। এতে ৫০ বছরেরও বেশি সময় ধরে সামরিক শাসনের অধীনে থাকা দেশটির গণতান্ত্রিক অগ্রযাত্রা রুদ্ধ হয়ে পড়েছে।

সামরিক অভ্যুত্থানের পর থেকেই সেনাবিরোধী গণতন্ত্রপন্থিরা রাজপথে নেমে বিক্ষোভ করছেন। প্রথম দিকে সংযম দেখালেও কয়েকদিন ধরে বিক্ষোভ দমনে সহিংসতার পথ নিয়েছে দেশটির নিরাপত্তা বাহিনী।