হত্যা মামলার আসামীরা জামিন পেয়ে মামলা তুলে নিতে বাদীকে প্রাণ নাশের হুমকি


411 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
হত্যা মামলার আসামীরা জামিন পেয়ে মামলা তুলে নিতে বাদীকে প্রাণ নাশের হুমকি
মে ১৪, ২০১৬ ফটো গ্যালারি সাতক্ষীরা সদর
Print Friendly, PDF & Email

নূরুজ্জামান রিকো:
সাতক্ষীরায় একটি হত্যা মামলার আসামীরা আদালত থেকে জামিন নিয়ে মামলা তুলে নেয়ার জন্য বাদী এক গ্রামপুলিশকে প্রাণনাশের হুমকি দিচ্ছে বলে অভিযোগ উঠেছে। শনিবার দুপুরে সাতক্ষীরা প্রেসক্লাবে এক সংবাদ সম্মেলনে এই অভিযোগ করেন জেলার আশাশুনি উপজেলার শ্বেতপুর গ্রামের আব্দুল খালেকের ছেলে গ্রাম পুলিশ মোঃ আব্দুল আলিম সরদার।

সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যে আব্দুল আলিম বলেন, প্রায় দেড় বছর আগে তার মেয়ে ফেরদৌসি আক্তারকে সাতক্ষীরা সদর উপজেলার দক্ষিন আলীপুর গ্রামের আবুল কালাম মোড়লের ছেলে জামাল উদ্দিন মোড়লের সঙ্গে বিয়ে দেন। বিয়ের পর থেকে যৌতুকের দাবিতে জামাইসহ শশুর বাড়ির লোকজন প্রায় তার মেয়েকে মারপিট করতো। যৌতুকের দাবিতে গত ২২ ফেব্রুয়ারী দিবাগত রাতে জামাই জামাল উদ্দিন মোড়ল, তার ভাই বাপ্পী মোড়ল, শশুর আবুল কালাম মোড়ল ও শাশুড়ি মঞ্জুয়ারা খাতুন পূর্ব পরিকল্পিতভাবে তার মেয়ে ফেরদৌসি আক্তারকে হত্যা করে। এঘটনায় তিনি নিজে বাদী হয়ে উল্লেখিতদের নামে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনের ১১(ক)/ ৩০ ধারায়  সদর থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। ময়না তদন্ত প্রতিবেদনে হত্যা এবং শরীরের বিভিন্ন স্থানে আঘাতের চিহৃ রয়েছে উল্লেখ থাকা স্বত্বেও তদন্তকারি কর্মকর্তা তড়িঘড়ি করে মামলার শেষের তিনজন আসামীকে অব্যহতি দিয়ে শুধুমাত্র এক নম্বর আসামী জামাল উদ্দিনের বিরুদ্ধে আদালতে অভিযোগপত্র দাখিল করেন।

তিনি বলেন, মামলাটি বিচারের জন্য সাতক্ষীরা নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালে বদলি হলে ৫ এপ্রিল ধার্য্য দিনে নারাজী দিলে আদালত তা গ্রহণ করে অব্যহতিপ্রাপ্ত তিন আসামীর বিরুদ্ধে গ্রেফতারী পরোয়ানা জারি করেন। পরে ২ মে ওই তিন আসামী আদালত থেকে জামিন নিয়ে এলাকায় এসে ৫ মে শ্বেতপুর গ্রামের রাস্তায় একা পেয়ে মামলা তুলে নেয়ার জন্য তাকে (বাদী) হুমকি দেয়। এসময় মামলা তুলে না নিলে মেয়ের মত তাকেও হত্যা করে লাশ গুম করা হবে হুমকি দেয় আসামীরা। এঘটনায় ৮ মে তিনি আসামীদের বিরুদ্ধে আশাশুনি থানায় একটি সাধারণ ডায়েরী করেন। এতে আসামীরা আরো ক্ষিপ্ত হয়ে তাকে প্রাণনাশের হুমকি দিচ্ছে। ফলে পরিবারের সদস্যদের নিয়ে তিনি বর্তমানে চরম নিরাপত্তাহিনতায় ভুগছেন। তিনি মেয়ে হত্যার ন্যায় বিচার দাবি করে হত্যকারীদের বিরুদ্ধে যথাযত আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণে প্রধান মন্ত্রী শেখ হাসিনাসহ উর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষের জরুরী হস্তক্ষেপ কামনা করেন।