‘হামলার আশঙ্কায়’ যুক্তরাষ্ট্রের নতুন সতর্কতা


365 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
‘হামলার আশঙ্কায়’ যুক্তরাষ্ট্রের নতুন সতর্কতা
অক্টোবর ১৮, ২০১৫ প্রবাস ভাবনা ফটো গ্যালারি
Print Friendly, PDF & Email

ভয়েস অব সাতক্ষীরা ডটকম ডেস্ক :

শনিবার দূতাবাসের হালনাগাদ করা নিরাপত্তাবিষয়ক বার্তায় বলা হয়েছে,“বাংলাদেশে বিদেশিদের নিরাপত্তা বাড়াতে আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী সংস্থাগুলো অসাধারণ পদক্ষেপ নিয়েছে। কিন্তু এখনও ‘বাস্তব ও বিশ্বাসযোগ্য’ সন্ত্রাসী হুমকি রয়েছে।”

তবে বিদেশিদের চলাফেরা সীমিত করার মতো পরিস্থিতি তৈরি হয়নি বলে মনে করছে যুক্তরাষ্ট্র।

“আইন-শৃঙ্খলা পরিস্থিতি এত খারাপ পর্যায়ে যায়নি যে,বিদেশিদের চলাফেরা সীমিত করতে হবে,” বলা হয়েছে সতর্ক বার্তায়।

গত ২৮ সেপ্টেম্বর ও ৩ অক্টোবর ঢাকা ও রংপুরে দুই বিদেশি খুন হওয়ার পর মধ্যপ্রাচ্যভিত্তিক জঙ্গি গোষ্ঠী আইএস হত্যার দায় স্বীকার করে বলে খবর দেয় জঙ্গি তৎপরতা পর্যবেক্ষণকারী সংস্থা ‘সাইট ইন্টিলিজেন্স গ্রুপ’।

তবে দুই খুনের সঙ্গে আইএস-এর সম্পৃক্ততার কোনো প্রমাণ মেলেনি বলে সরকার বলে আসছে। আইএসের নামে যে টুইট করা হয় তা বাংলাদেশ থেকেই আপলোড করা হয়েছিল বলে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল জানিয়েছেন।

দুই বিদেশি হত্যাকাণ্ড নিয়ে ‘অতি-প্রতিক্রিয়া’ হয়েছে বলে পোশাক খাতের মালিকদের সংগঠন বিজিএমইএ বলেছে।

শনিবার এক সংবাদ সম্মেলনে বিজিএমইএ সভাপতি মো.সিদ্দিকুর রহমান বলেন, “দুটি খুনের ঘটনায় ওভার রি-অ্যাকশন হয়েছে। পৃথিবীর বিভিন্ন দেশে এরকম খুন হয়। আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি এমন হয়নি যে, বিদেশিরা চলাচল করতে পারছে না। পরিস্থিতি সম্পূর্ণ সরকারের নিয়ন্ত্রণে রয়েছে।”

বিজিএমইএর এ বক্তব্যের দিনই ঢাকায় যুক্তরাষ্ট্র দূতাবাসের জারি করা এই বার্তায় ‘সতর্কতার সঙ্গে, ব্যক্তিগত নিরাপত্তার বিষয়ে সজাগ থেকে এবং স্থানীয় নিরাপত্তা পরিস্থিতি সম্পর্কে অবগত হয়ে’ বাংলাদেশে বসবাস ও ভ্রমণে নাগরিকদের উৎসাহিত করা হয়েছে।

এতে বলা হয়, বাংলাদেশে পশ্চিমাদের উপর সন্ত্রাসী হামলা হতে পারে বলে আগে যে সতর্কতা জারি করা হয়েছিল এখনও সে বিষয়ে ‘নির্ভরযোগ্য তথ্য’ রয়েছে।

দুই বিদেশি খুন হওয়ার পর ঢাকার কূটনৈতিক পাড়াসহ সারা দেশেই বিদেশিদের নিরাপত্তায় বাড়তি ব্যবস্থা নেওয়া হয়। বাংলাদেশে অবস্থানরত প্রায় সোয়া দুই লাখ বিদেশি নাগরিকের নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে তাদের অবস্থান ও কর্মস্থল চিহ্নিত করে নিরাপত্তা ব্যবস্থা নেওয়ার কথা জানিয়েছে সরকার।