১২ ঘণ্টার আল্টিমেটামে খুলল বিএনপি কার্যালয়ের তালা


283 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
১২ ঘণ্টার আল্টিমেটামে খুলল বিএনপি কার্যালয়ের তালা
ডিসেম্বর ৮, ২০১৮ জাতীয় ফটো গ্যালারি
Print Friendly, PDF & Email

অনলাইন ডেস্ক ::

রাজধানীর নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে তালা ঝুলিয়ে দেওয়ার পর ১২ ঘণ্টার অাল্টিমেটাম দিয়ে তা আবার খুলে দিয়েছেন সাবেক শিক্ষা প্রতিমন্ত্রী ও বিএনপির আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক আ ন ম এহছানুল হক মিলনের সমর্থকেরা।

আসন্ন একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে দলের পক্ষে বিএনপির এই নেতাকে মনোনয়ন না দেওয়ায় শনিবার দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে বিক্ষোভ শুরু করেন সমর্থকরা। এক পর্যায়ে দলের কেন্দীয় কার্যালয়ের প্রধান ফটকে তালা মেরে দেন তারা।

শতাধিক বিএনপি নেতাকর্মী মিলনের পক্ষে দলটির কার্যালয়ের সামনে অবস্থান নেন। পরে দলের সিনিয়র যুগ্ম-মহাসচিব রুহুল কবির রিজভীর কাছে জানতে চাইলেও মিলনকে কেন মনোনয়ন দেওয়া হয়নি তার উত্তর দেননি তিনি।

দুপুরের পরও মিলন সমর্থকদের বিক্ষোভ চলে। এক পর্যায়ে নিরাপত্তাকর্মীরা কার্যালয়টিতে ভেতর থেকে তালা মেরে দেন। পরে মিলনের সমর্থকরাও বাইরে থেকে ফটকে তালা মারেন। বিকেলের দিকে ১২ ঘণ্টার মধ্যে দাবি মানার আল্টিমেটাম দিয়ে তালা খুলে দেন তারা।

এ বিষয়ে চাঁদপুরের কচুয়া উপজেলা বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক জাহাঙ্গীর আলম ফারুকি বলেন, মিলন যখন দেশের বাইরে ছিলেন তখনও তার সঙ্গে চাঁদপুরের নেতাদের যোগাযোগ ছিল। এই আসনটি উদ্ধার করার জন্য মিলনের কোনও বিকল্প নেই।

চাদপুর জেলা যুবদলের সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক আলাউদ্দিন বলেন, দলের যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভীর আমাদের আশ্বস্ত করেছেন। আমরা ১২ ঘণ্টার মধ্যে কচুয়া আসনে মিলনকে মনোনয়ন দেওয়ার কথা বলেছি। না হলে পল্টন কার্যালয় ও গুলশানের চেয়ারপারসনের কার্যালয়ে তালা দেওয়া হবে।

উল্লেখ্য, চাঁদপুর-১ (কচুয়া) আসনে ধানের শীষের মনোনয়ন পেয়েছেন বিএনপির কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য মো. মোশাররফ হোসেন।

মিলন সমর্থকদের অভিযোগ, মো. মোশাররফ হোসেন এলাকায় পরিচিত নন। দলের তৃণমূলের সঙ্গে তার কোনো যোগাযোগ নেই। এজন্য তারা মোশাররফ হোসেনের পরিবর্তে এহছানুল হক মিলনকে মনোনয়ন দেওয়ার দাবি জানান।