১ সেপ্টেম্বর থেকে আগের ভাড়ায় ফিরছে গণপরিবহন


206 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
১ সেপ্টেম্বর থেকে আগের ভাড়ায় ফিরছে গণপরিবহন
আগস্ট ২৯, ২০২০ জাতীয় ফটো গ্যালারি
Print Friendly, PDF & Email

অনলাইন ডেস্ক ::

আগামী ১ সেপ্টেম্বর থেকে শর্তসাপেক্ষে সারাদেশে আগের ভাড়ায় চলবে গণপরিবহন। তুলে দেওয়া হচ্ছে ধারণ ক্ষমতার অর্ধেক যাত্রী পরিবহনের নির্দেশনাও।

শনিবার নিজ বাসভবন থেকে সড়ক ও জনপথ বিভাগের ঢাকা জোনের কর্মকর্তাদের সঙ্গে ভিডিও কনফারেন্সে এ তথ্য জানান সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের।

তিনি বলেন, ‘সামগ্রিক পরিস্থিতি এবং জনস্বার্থ বিবেচনা করে সরকার আগামী ১ সেপ্টেম্বর হতে গণপরিবহনের আগের নির্ধারিত ভাড়ায় ফিরে যাওয়ার সিদ্ধান্ত গ্রহণ করেছে। এ বিষয়ে মন্ত্রণালয় থেকে নির্দেশনা দেওয়া হবে।’

সড়ক পরিবহন মন্ত্রী জানান, পরিবহনগুলোর স্টাফ ও যাত্রীদের কয়েকটি শর্ত মেনে চলাচল করতে হবে। যেমন- মাস্ক পরতে হবে, পরিবহনগুলোতে স্যানিটাইজার ও স্বাস্থ্যসুরক্ষার ব্যবস্থা থাকতে হবে, ধারণ ক্ষমতার অতিরিক্ত যাত্রী পরিবহন বা দাঁড়ানো যাত্রী বহন করা যাবে না। প্রতিটি ট্রিপের শুরু এবং শেষে যানবাহন জীবাণুমুক্ত করতে হবে।

তিনি আরও বলেন, ‘আমি নিয়ম মেনে এবং শর্ত মেনে পরিবহন চালানোর জন্য পরিবহন মালিক-শ্রমিকদের আহ্বান জানাচ্ছি। পাশাপাশি যাত্রী সাধারণকেও মাস্ক পরিধানসহ নিজের সুরক্ষায় সচেতন থাকার অনুরাধ জানাচ্ছি।’

আইন অমান্যকারী যানবাহনের বিরুদ্ধে সঙ্গে সঙ্গে কঠোর ব্যবস্থা নিতে বিআরটিএকে নির্দেশ দেন এবং হাইওয়ে পুলিশ, জেলা পুলিশসহ সংশ্লিষ্টদের বিষয়টি কঠোরভাবে প্রতিপালনের আহ্বান জানান ওবায়দুল কাদের।

এর আগে বুধবার রাতে গণপরিবহন মালিকদের এক জরুরি বৈঠকে আগামী ১ সেপ্টেম্বর থেকে সাধারণ ভাড়ায় গণপরিবহন চালানোর সিদ্ধান্ত হয়।

গত ৩১ মে সরকার আন্তঃজেলা বাস পরিসেবাসহ সব বাসের ভাড়া ৬০ শতাংশ বাড়িয়ে প্রজ্ঞাপন জারি করে। করোনার কারণে সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখতে মোট আসনের অর্ধেক যাত্রীকে নিয়ে যানবাহন চলাচলের শর্ত হিসেবে এ বাস ভাড়া বাড়ানো হয়েছিল।

তবে সম্প্রতি পরিবহন মালিকরা সম্পূর্ণ ধারণ ক্ষমতায় আগের ভাড়ায় ফিরে যাওয়ার জন্য কর্তৃপক্ষের কাছে আবেদন জানান।