২৪ ঘণ্টা পার হলেও ছাত্রলীগ থেকে বহিষ্কার হয়নি বিতর্কিতরা


78 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
২৪ ঘণ্টা পার হলেও ছাত্রলীগ থেকে বহিষ্কার হয়নি বিতর্কিতরা
মে ১৮, ২০১৯ জাতীয় ফটো গ্যালারি
Print Friendly, PDF & Email

অনলাইন ডেস্ক ::

কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের পূর্ণাঙ্গ কমিটিতে থাকা বিতর্কিতদের বহিষ্কারের জন্য নেওয়া ২৪ ঘণ্টা সময় পার হলেও এখনও নেওয়া হয়নি কোনো ব্যবস্থা।

নিরপরাধ কেউ যেন বহিষ্কার না হয় সেজন্য গত বুধবার মধ্যরাতে ২৪ ঘণ্টা সময় নিয়েছিলেন ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় সভাপতি রেজওয়ানুল হক চৌধুরী শোভন ও সাধারণ সম্পাদক গোলাম রাব্বানী।

কমিটি থেকে বিতর্কিতদের বাদ দিতে ওই দিন দুপুরে আওয়ামী লীগ সভানেত্রী ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা তাদের নির্দেশ দেন। পরে রাতে ধানমণ্ডিতে আওয়ামী লীগ সভানেত্রীর রাজনৈতিক কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলন করে এই সময় নেন তারা।

এ বিষয়ে গোলাম রাব্বানী বলেন, নিয়ম অনুযায়ী এখনও কেউ তাদের কাছে আনুষ্ঠানিক লিখিত অভিযোগ দেয়নি। এসব বিষয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে প্রোপাগান্ডা ছড়ানো হয়েছে শুধু। তবে অভিযোগকে সত্য প্রমাণ করার দায়িত্বটা কিন্তু অভিযোগকারীরই। কিন্ত কেউ এমনটি করেননি।

তবে বঞ্চিতদের নেতৃত্বে থাকা গত কমিটির প্রচার সম্পাদক সাঈফ বাবু বলেন, অভিযুক্তদের কাছে প্রমাণ থাকলে তা তারা প্রকাশ করতে পারে। কিন্তু বিতর্কিদের বহিষ্কারের জন্য যে ২৪ ঘণ্টা সময় নেওয়া হয়েছিল, ৪৮ ঘণ্টা পার হয়ে গেলেও তার কোনো বাস্তবায়ন দেখা যাচ্ছে না।

সম্মেলনের এক বছর পর গত সোমবার সংগঠনটির পূর্ণাঙ্গ কমিটি ঘোষণা করা হলে ওই দিনই সন্ধ্যায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের মধুর ক্যান্টিনে পদবঞ্চিত ও প্রত্যাশিত পদ না পাওয়া নেতাকর্মীরা মধুর ক্যান্টিনে সংবাদ সম্মেলন করতে যান। এসময় সংগঠনের বর্তমান সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকের অনুসারীরা তাদের ওপর হামলা চালান। এতে কয়েকজন নারী নেত্রীসহ অন্তত ১০ জন আহত হন।

ঘটনা তদন্তে পরদিন মঙ্গলবার তিন সদস্যের কমিটি করা হয়। কমিটিকে ৪৮ ঘণ্টার মধ্যে প্রতিবেদন দিতে বলা হয় যার সময়সীমা গত বৃহস্পতিবার শেষ হয়। শনিবার তদন্ত কমিটির প্রতিবেদন দেওয়ার কথা ছিলো। মধুর ক্যান্টিনের ওই ঘটনায় পাঁচজনকে বহিষ্কারের সুপারিশ করে প্রতিবেদন অনেকটাই চূড়ান্ত করা হয়ে গেছে বলে জানা গেছে।

এ বিষয়ে জানতে তদন্ত কমিটির প্রধান ও ছাত্রলীগের নতুন কমিটির সহ-সভাপতি আল নাহিয়ান খান জয়কে একাধিকবার ফোন করা হলেও তিনি রিসিভ করেননি।