২৫ টাকা কেজিতে আলু বিক্রি করবে টিসিবি


40 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
২৫ টাকা কেজিতে আলু বিক্রি করবে টিসিবি
অক্টোবর ১৮, ২০২০ জাতীয় ফটো গ্যালারি
Print Friendly, PDF & Email

অনলাইন ডেস্ক ::

সাশ্রয়ী মূল্যে ক্রেতাদের আলু সরবরাহ করবে বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের আওতাধীন সংস্থা ট্রেডিং করপোরেশন অব বাংলাদেশ (টিসিবি)। সংস্থাটি ট্রাক সেলের মাধ্যমে অন্যান্য পণ্যের সঙ্গে ক্রেতাদের চাহিদা পূরণে আলু বিক্রির সিদ্ধান্ত নিয়েছে বাণিজ্য মন্ত্রণালয়। প্রতি কেজি আলু ২৫ টাকা দরে শিগগিরই বিক্রি করবে টিসিবি।

রোববার সচিবালয়ে বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের সম্মেলন কক্ষে কোল্ড ষ্টোরেজ এসোসিয়েশন, আলুর পাইকারি বিক্রেতা, কৃষি বিপণণ অধিদফতর, কৃষি সম্প্রসারণ অধিদতরসহ সরকারের সংশ্নিষ্ট সংস্থা ও বিভাগের কর্মকর্তাদের নিয়ে আয়োজিত এক সভায় এ ঘোষণা দেন বাণিজ্যমন্ত্রী।

বৈঠকে টিপু মুনশি বলেন, সরকার নির্ধারিত মূল্যে বাজারে আলু বিক্রি নিশ্চিত করা হবে। এজন্য বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের অধীন জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদফতরসহ সরকারের সংশ্নিষ্ট সংস্থাগুলো কাজ শুরু করেছে। দেশে প্রয়োজনীয় আলু মজুদ রয়েছে। আলু সংকটের কোন সম্ভাবনা নেই। কোন অবস্থাতেই অধিক লাভ করার সুযোগ দেওয়া হবে না।

মন্ত্রী বলেন, দেশে আলুর কোনো ঘাটতি নেই। প্রচুর আলু আবাদ হয়েছে। বন্যা ও বৃষ্টির কারণে সবজির আবাদ কিছুটা ক্ষতি হওয়ার কারণে আলুর চাহিদা বেড়েছে। তবে সরকার নির্ধারিত মূল্যের বেশি আলুর দাম হওয়ার যৌক্তিক কারণ নেই। তিনি ব্যবসায়ীদের নির্ধারিত মূল্যে বিক্রির আহ্বান জানান।

গত ৭ অক্টোবর কৃষি বিপণন অধিদফতর প্রতি কেজি আলুর মূল্য কোল্ড স্টোরেজ পর্যায়ে ২৩ টাকা, পাইকারিতে ২৫ টাকা ও খুচড়ায় ৩০ টাকা নির্ধারণ করে দিয়েছে। এখনও হিমাগারে ৩২ থেকে ৩৫ টাকা, পাইকারিতে ৩৮ থেকে ৪০ টাকা ও খুচরায় ৪৫ থেকে ৫০ টাকা কেজিতে আলু বিক্রি হচ্ছে।

বাণিজ্য সচিব ড. মো. জাফর উদ্দীনের সঞ্চালনায় সভায় উপস্থিত ছিলেন-কৃষি বিপণণ অধিদফতরের মহাপরিচালক মোহাম্মদ ইউসুফ, বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ে অতিরিক্ত সচিব (রপ্তানি) মো. ওবায়দুল আজম, অতিরিক্ত সচিব (আইআইটি) মো. হাফিজুর রহমান, জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদফতরের মহাপরিচালক বাবলু কুমার সাহা, বাংলাদেশ ট্রেডিং করপোরেশন অব বাংলাদেশের (টিসিবি) চেয়ারম্যান ব্রি.জে মো. আরিফুল হাসান, রপ্তানি উন্নয়ন ব্যুরোর ভাইস চেয়ারম্যান এ এইচ এম আহসান, বাংলাদেশ কোল্ড স্টোরেজ অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি মো. মোশারফ হোসেন, ট্রেড অ্যান্ড ট্যারিফ কমিশনের সদস্য শাহ মো. আবু রায়হান আল-বেরুনি, র‌্যাব, ডিজিএফআই, এনএসআইর প্রতিনিধি, কোল্ড স্টোরেজ অ্যাসোসিয়েশন এবং পাইকারি আলু ব্যবসায়ীদের প্রতিনিধিরা।

বৈঠক সূত্রে জানা যায়, ব্যবসায়ীরা আলুর দাম পর্যালোচনা করার দাবি জানিয়েছেন। একই সঙ্গে আলুর দাম যাতে ভোক্তাদের নাগালে আসে তার জন্য উদ্যোগ নেওয়ার দাবি উঠে। আলুর দাম সহনশীল পর্যায়ে রাখার জন্য চলতি সপ্তাহের মধ্যে আরেকটি পর্যালোচনা সভা করা হবে।