৪ নং ওয়ার্ড সদস্য প্রার্থী গোলাম মোস্তফার ভোট পূন:গননা দাবী


504 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
৪ নং ওয়ার্ড সদস্য প্রার্থী গোলাম মোস্তফার ভোট পূন:গননা দাবী
ডিসেম্বর ২৮, ২০১৬ ফটো গ্যালারি সাতক্ষীরা সদর
Print Friendly, PDF & Email

স্টাফ রিপোর্টার  :
আমার নিশ্চিত বিজয়কে ছিনিয়ে নিয়েছেন ৪ নম্বর ওয়ার্ড কেন্দ্রের প্রিসাইডিং অফিসার মো. আমজাদ হোসেন। আমার বিজয়কে তিনি আমার প্রতিপক্ষ মনিরুল ইসলামকে দিয়ে দিয়েছেন। আমি এ নির্বাচন মানিনা। আমি ভোট পুনঃগননা চাই।
বুধবার সন্ধ্যায় সাতক্ষীরা প্রেসক্লাবে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে একথা বলেন জেলা পরিষদ নির্বাচনে সাধারন সদস্য পদে বেসরকারি ফলাফলে পরাজিত প্রার্থী  গোলাম মোস্তফা বাবু।
তিনি বলেন তালা  প্রতীক নিয়ে তিনি নির্বাচনে নামেন।
অপরদিকে তার প্রতিদ্বন্দ্বী মনিরুলের প্রতীক ছিল টিউবওয়েল। তিনি বলেন আমরা দুজনেই ২৭ ভোট করে লাভ করি। এ সময় সিদ্ধান্তহীনতায় পড়ে ভোট গ্রহন কর্তৃপক্ষ। বিষয়টি নিশ্চিত করে আমার এজেন্ট বাবলুর রহমান টয়লেটে গেলে সেই ফঁাঁকে তার ব্যালটে তালা প্রতীক ছাড়াও বৈদ্যুতিক পাখা প্রতীকে আরও একটি সিল বসানো হয়। এভাবে ব্যালটটি নষ্ট করে আমাকে পরাজিত দেখানো হয়। এর জন্য প্রিসাইডিং অফিসার আমজাদ হোসেনকে সরাসরি দায়ী করে তিনি বলেন তিনি তার এজেন্টকে পুলিশের মাধ্যমে চাপ দিয়ে দুটি কাগজে সই করিয়ে নিয়েছেন। গোলাম মোস্তফা বলেন জেলা পরিষদ নির্বাচনে প্রত্যেক ভোটারই সচেতন। তাদের কেউ একই ব্যালটে দুৃটি সিল মারবেন এটি বিশ্বাস করার কোনো কারণ নেই। তাকে পরাজিত দেখানোর  লক্ষ্যে প্রতিপক্ষের দ্বারা অনৈতিকভাবে প্রভাবিত হয়ে তাকে জোর করেই হারিয়ে দেওয়া হয়েছে বলে অভিযোগ করনে তিনি।
গোলাম মোস্তফা সাতক্ষীরার কুশখালির ভাদড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের কেন্দ্রের ভোট পুনঃগননা ও এ ঘটনার সাথে জড়িত প্রিসাইডিং অফিসারসহ অন্যদের শাস্তি দাবি করেছেন।