৫ বছরেও হয়নি ফেলানী হত্যার বিচার


258 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
৫ বছরেও হয়নি ফেলানী হত্যার বিচার
জানুয়ারি ৭, ২০১৬ জাতীয় ফটো গ্যালারি
Print Friendly, PDF & Email

ভয়েস অব সাতক্ষীরা ডটকম ডেস্ক :
বহুল আলোচিত ফেলানী হত্যার পঞ্চম বার্ষিকী আজ। কুড়িগ্রামের ফুলবাড়ী উপজেলার অনন্তপুর সীমান্তে কাঁটাতারের বেড়া পার হওয়ার সময় বিএসএফ তাকে গুলি করে হত্যা করেছিল। এই হত্যাকাণ্ডের ন্যায্য বিচার আজও পায়নি তার পরিবার।

কিশোরী ফেলানী হত্যায় বিএসএফের জেনারেল সিকিউরিটি ফোর্স আদালত অভিযুক্ত বিএসএফ সদস্য অমিয় ঘোষকে নির্দোষ ঘোষণা করে রায় দিয়েছেন। এই রায় প্রত্যাখ্যান করে ভারতের সুপ্রিম কোর্টে রিট করা হলেও তার শুনানি দীর্ঘদিন ধরে ঝুলে আছে।

এতে ফেলানীর গ্রামের বাড়ি কুড়িগ্রামের নাগেশ্বরী উপজেলার সীমান্ত ঘেঁষা কলোনিটারী গ্রামে আজও বিরাজ করছে শোক আর ক্ষোভ। সেই সঙ্গে ন্যায্য বিচার পাওয়ার প্রতীক্ষায় দিনের পর দিন, মাসের পর মাস, বছরের পর বছর ধরে অপেক্ষা করছে তার পরিবার।

পাঁচ বছর আগে ২০১১ সালের ৭ জানুয়ারি ভোর ৬টার দিকে কুড়িগ্রামের ফুলবাড়ী উপজেলার অনন্তপুর সীমান্তে কাঁটাতারের বেড়া পার হয়ে ভারত থেকে দেশে ফেরার সময় বিএসএফ সদস্য অমিয় ঘোষ ১৪ বছর বয়সী ফেলানীকে গুলি করে হত্যা করেছিল।

এ সময় ফেলানীর মরদেহ ৫ ঘণ্টা কাঁটাতারে ঝুলে ছিল। এরপর দু’দিনব্যাপী দফায় দফায় পতাকা বৈঠকের পর বিএসএফ ফেলানীর লাশ বিজিবির কাছে ফেরত দিয়েছিল।