পঞ্চগড়ের তেঁতুলিয়ায় পুলিশ-শ্রমিক সংঘর্ষে নিহত ১, আহত ২০


66 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
পঞ্চগড়ের তেঁতুলিয়ায় পুলিশ-শ্রমিক সংঘর্ষে নিহত ১, আহত ২০
জানুয়ারি ২৬, ২০২০ জাতীয় ফটো গ্যালারি
Print Friendly, PDF & Email

পঞ্চগড় প্রতিনিধি

পঞ্চগড়ের তেঁতুলিয়া উপজেলায় পাথর শ্রমিকদের সঙ্গে পুলিশের সংঘর্ষে জুমার উদ্দিন (৬০) নামের এক শ্রমিক নিহত হয়েছেন। এ ঘটনায় ৮ পুলিশ, ৩ র‌্যাব সদস্যসহ কমপক্ষে ২০ জন আহত হয়েছেন।

রোববার সকালে তেঁতুলিয়া-ঢাকা জাতীয় মহাসড়কের ভজনপুর এলাকায় এই ঘটনা ঘটে।

নিহত পাথর শ্রমিক জুমার উদ্দিনের বাড়ি তেঁতুলিয়া উপজেলার ভজনপুর ইউনিয়নের গনাগছ এলাকায়।

পুলিশ ও স্থানীয়রা জানায়, তেঁতুলিয়া উপজেলার ভজনপুর এলাকার পাথর শ্রমিকরা অবৈধভাবে ভূগর্ভস্থ পাথর উত্তোলনের দাবিতে রোববার সকালে মহাসড়ক অবরোধ করে। পুলিশ যান চলাচল স্বাভাবিক করতে গেলে পাথর শ্রমিকদের সঙ্গে পুলিশের সংঘর্ষ হয়। এক পর্যায়ে পুলিশের উপর পাথর নিক্ষেপসহ পুলিশের চারটি গাড়ি ভাংচুর করে শ্রমিকরা। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে পুলিশ কয়েক রাউন্ড টিয়ারসেল নিক্ষেপ করে। এ সময় ৮ পুলিশ ও ৩ র‌্যাব সদস্যসহ কমপক্ষে ২০ জন আহত হন। এদের মধ্যে গুরুতর আহতাবস্থায় হাসপাতালে নেওয়ার পথে জুমার উদ্দিন নামে এক পাথর শ্রমিক মারা যান। আহতদের পঞ্চগড় আধুনিক সদর হাসপাতালসহ বিভিন্ন স্বাস্থ্যকেন্দ্রে ভর্তি করা হয়েছে। এদের মধ্যে তিন পাথর শ্রমিককে গুরুতর আহতাবস্থায় রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

পঞ্চগড় আধুনিক সদর হাসপাতালের আবাসিক চিকিৎসক ডা. সিরাজ উদ্দৌলা পলিন বলেন, আহত অবস্থায় পুলিশসহ কয়েকজনকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এদের মধ্যে একজন হাসপাতালে আনার পূর্বেই মারা যান। তিনি কিভাবে মারা যান সেটা তাৎক্ষণিক বলা মুশকিল। অন্যদের চিকিৎসা সেবা দেওয়া হচ্ছে।

পুলিশ সুপার মোহাম্মদ ইউসুফ আলী বলেন, শ্রমিকরা অবৈধভাবে পাথর উত্তোলনের অন্যায় দাবিতে সড়ক অবরোধ করলে পুলিশ তাদের বাধা দেয়। এক পর্যায়ে শ্রমিকরা পুলিশের উপর ইট পাটকেল ও পাথর ছুড়ে মারে। তারা আমাদের গাড়িও ভাংচুর করে। পরে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে পুলিশ কয়েক রাউন্ড টিয়ারসেল ছুড়ে। বর্তমানে পরিস্থিতি স্বাভাবিক রয়েছে।