সাতক্ষীরায় জালিয়াতির মাধ্যমে পৈত্রিক সম্পত্তি দখলের চেষ্টা !


267 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
সাতক্ষীরায় জালিয়াতির মাধ্যমে পৈত্রিক সম্পত্তি দখলের চেষ্টা !
জুলাই ১২, ২০১৭ তালা ফটো গ্যালারি
Print Friendly, PDF & Email

স্টাফ রিপোর্টার ::
সাতক্ষীরার তালা সহকারি কমিশনার ভুমি এর সহযোগিতায় আপন ভাই কর্তৃক জাল-জালিয়াতির মাধ্যমে পৈত্রিক সম্পত্তি জোরপূর্বক দখলের চেষ্টার অভিযোগ উঠেছে। বুধবার দুপুরে সাতক্ষীরা প্রেসক্লাবে এক সংবাদ সম্মেলনে এই অভিযোগ করেন তালা উপজেলার ঘোষ নগর গ্রামের মৃত নৃপেন্দ্র নাথ ঘোষের ছেলে অবসর প্রাপ্ত শিক্ষক দুলাল কান্তি ঘোষ।
সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যে তিন বলেন, আমার পিতা নৃপেন্দ্র নাথ ঘোষ তালা উপজেলার ইসলামকাটি অধীনস্থ জে, এল ১৩৫ নং ঘোষ নগর মৌজায় এসএ ৮২, ৮৩, ৩৮, ৩৬ ও ২৩ নং খতিয়ানভুক্ত দাগে দশমিক ৯৬ একর এবং একই মৌজায় এসএ ১১৩ নং খতিয়ানভুক্ত দাগে ৪ দশমিক ৮৮ একর মিলে মোট ৬ ট খতিয়ানে ৫ দশমিক ৮৪ একর জমির মধ্যে ওয়ারিশন সত্বে ও খরিদা সত্বে মোট ৩ দশমিক ৪০ একর সত্ব দখলীয় মালিক হিসাবে ভোগ দখল করা অবস্থায় মৃত্যু বরণ করেন। পিতার মৃত্যুর পর আমি দুলাল কান্তি ঘোষ ও অমল কান্তি ঘোষ দুই ভাই ওয়ারিশ থাকি। সে মোতাবেক পিতার মৃত্যুর পর তার ত্যাক্ত জমি পৈত্রিক সুত্রে ১ দশমিক ৭০ একর জমি অদ্যাবধি শান্তিপূর্ণ ভাবে ভোগদখলে আছি এবং সরকারের সেরেস্তায় করাদী পরিশোধ করে আসছি।
তিনি অভিযোগ করে বলেন, আমার কোন ছেলে না থাকায় মৃত্যুর পর সাত মেয়ে আমার সম্পতির মালিক হবে ভেবে ভাই অমল ঘোষ আমার পৈত্রিক সম্পত্তি দখলের জন্য বিভিন্ন ষড়যন্ত্রে লিপ্ত হয়। সে জাল দলিল সৃষ্টি করে আমার ও মেয়েদের অজান্তে আমার স্বত্ব দখলীয় ১ দশমিক ৭০ একর জমি নিজের নামে নাম পত্তন করার জন্য পাটকেলঘাটা সহকারী কমিশনার ভূমি আদালতে নামজারী কেস করে। আমার ভাই অমল ঘোষ একজন মুক্তিযোদ্ধা হওয়ায় অবৈধ প্রভাব খাটিয়ে স্থানীয় তহশীল দ্বারের সাথে যোগসাজসে মোটা অংকের টাকার বিনিময় সহকারী কমিশনার ভূমিকে ম্যানেজ করে ০৩/১৫-১৬ নং নাম পত্তন কেসের মাধ্যমে নিজ নামে উক্ত সম্পত্তি রেকর্ড করার চেষ্টা করে।
তিনি আরো বলেন, খবর পেয়ে তহশীলদারের কাছে জানতে চাইলে তিনি ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বিষয়টি তালা উপজেলা সহকারী কমিশনার ভূমিকে জানানোর পরামর্শ দেন। বিষয়টি সহকারী কমিশনার ভূমিকে জানালে তিনি ১৫০ ধারা মোতাবেক অমলের বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করতে বলেন। আমি সহকারী কমিশনার ভূমি আদালতে ০৩/১৫-১৬ তারিখের আদেশ মোতাবেক প্রস্তুত কৃত নাম পত্তনের রেকর্ড বাতিল করার আবেদন করি এবং মালিকানা সত্বের যাবতীয় কাগজ ও দলিল উপস্থাপন করি। মামলাটি বর্তমানে চলমান আছে। সাব রেজিঃ অফিসসহ বিভিন্ন কার্যালয়ে অনুসন্ধান করে অমল ঘোষের দাখিলকৃত দলিলের কোন সত্যতা পাওয়া যায়নি। অমলের দাখিলকৃত দলিল জাল, তঞ্চকী, ভূয়া, পুন বিহীন হওয়া সত্বেও পাটকেলঘাটাস্থ সহকারী কমিশনার ভূমি কর্তকর্তা দীর্ঘদিন যাবত দায়েরকৃত মামলার নিম্পত্তি না করে আমাকে ঘুরাচ্ছেন। বৈধ কাগজপত্র থাকারপরও আমার পৈত্রিক সম্পত্তি থেকে আমার মেয়েদের বঞ্চিত করার সুযোগ করে দিয়েছেন সহকারী কমিশনার ভূমি ও তহশীলদার।
তিনি জাল দলিল সৃষ্টিকারী অমল ঘোষ ও তার সহযোগিতকারি পাটকেলঘাটাস্থ সহকারী কমিশনার ভূমি ও তহশীলদারের কবল থেকে পৈত্রিক সম্পত্তি উদ্ধার করতে সাতক্ষীরা পুলিশ সুপারসহ সংশি¬ষ্ট কর্তৃপক্ষের আশু হস্তক্ষেপ কামনা করেন।