‘সুপার ফুড’ দুধের নানা গুণ


78 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
‘সুপার ফুড’ দুধের নানা গুণ
সেপ্টেম্বর ৮, ২০১৭ ফটো গ্যালারি স্বাস্থ্য
Print Friendly, PDF & Email

অনলাইন ডেস্ক ::
পুষ্টিতে ভরপুর দুধ সবার জন্য অতি দরকারী এক খাবার। প্রতিদিন খাবার তালিকায় একগ্লাস দুধ যতটা পুষ্টি যোগাতে পারে অন্য কোন খাবার ততটা পারে না। দুধকে তাই বলা হয় ‘সুপারফুড’। দুধের রয়েছে বেশকিছু উপকারিতা যা অনেকেরই অজানা। আসুন জেনে নেয়া যাক:

ক্লান্তি দূর করে

কর্মব্যস্ততার পর ক্লান্তি দূর করতে এক গ্লাস গরম দুধ খুবই উপকারী । গরম দুধ ক্লান্ত পেশী সতেজ করতে সাহায্য করে। দুধ খেলে শরীরে মেলটনিন ও ট্রাইপটোফ্যান হরমোন নিঃসৃত হয়, এই হরমোনগুলো ঘুম ভালো হতে সাহায্য করে।

ক্ষুধা কমায়

দুধ অতিরিক্ত ক্ষুধা কমাতে সাহায্য করে। তাই প্রতিদিন খানিকটা দুধ খেলে তা অনেকটা সময় ক্ষুধা কমিয়ে রাখতে সাহায্য করবে।

হৃদপিণ্ড সুস্থ রাখে ও রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণ করে

দুধে রয়েছে পটাশিয়াম যা হৃদপিণ্ডের পেশী সুস্থ রাখতে সাহায্য করে। তাছাড়া এর খনিজ উপাদান হৃদপিণ্ড সতেজ রেখে রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণ করতে সাহায্য করে।

নরম ও ঝলমলে চুলের জন্য

দুধে আছে প্রচুর ফ্যাটি অ্যাসিড এবং অ্যামাইনো অ্যাসিড, যা চুলের জন্য খুব উপকারী। তাছাড়া দুধের ক্যালসিয়াম দাঁত ও হাড়ের জন্য জরুরি। চুল লম্বা পেতে এবং চুল পড়ার সমস্যা কমাতেও দুধের বিভিন্ন খনিজ উপাদান কাজ করে।

১০০ গ্রামে দুধে রয়েছে

গরুর দুধের প্রতি ১০০ গ্রামে আছে প্রোটিন ৩.৩ গ্রাম, চর্বি ৩.৪ গ্রাম, শর্করা ৪.৮ গ্রাম, ক্যালসিয়াম ০.২ মিগ্রা, লৌহ ২.০ মিগ্রা, খাদ্যশক্তি ৭১ কিলোক্যালরি। ছাগলের দুধের পুষ্টিগুণ : প্রতি ১০০ গ্রাম ছাগলের দুধে আছে প্রোটিন ৩.৭ গ্রাম, স্নেহ পদার্থ ৫.৬ গ্রাম, শর্করা ৪.৭ গ্রাম, ক্যালসিয়াম ০.১৭ মিগ্রা, লৌহ ০.৩ গ্রাম, ৮৪ কিলোক্যালরি খাদ্যশক্তি।

তবে, হাইপারঅ্যাসিডিটি থাকলে দুধ এড়িয়ে চলাই ভালো।