সাতক্ষীরায় স্কুল পিয়নকে প্রকাশ্য দিবালোকে কুপিয়েছে দুবৃত্তরা


1597 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
সাতক্ষীরায় স্কুল পিয়নকে প্রকাশ্য দিবালোকে কুপিয়েছে দুবৃত্তরা
অক্টোবর ২১, ২০১৭ ফটো গ্যালারি সাতক্ষীরা সদর
Print Friendly, PDF & Email

স্টাফ রিপোর্টার ::
সাতক্ষীরায় পূর্ব শক্রুতার জের ধরে শহরের মুন্সিপাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের পিয়ন কাম নৈশ প্রহরী নাজির হোসেন সোহাগ (২৭) কে প্রকাশ্য দিবালোকে এলোপাতারিভাবে ধারালো রামদা ও চাইনিজ কূড়াল দিয়ে কুপিয়েছে দূবৃত্তরা। শনিবার সকাল অনুমান ৮টার দিকে মুনজিতপুর কেন্দ্রীয় ঈদ গাহের পাশে এ ঘটনা ঘটে। পরে গুরুতর আহত অবস্থায় সোহাগকে সাতক্ষীরা সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। সূত্রে জানা যায়, শহরের মুনজিতপুর এলাকার মঈনুল ইসলামের ছেলে দ্বীপসহ তার সন্ত্রাসী বাহিনীরা পূর্ব শক্রুতার জের ধরে মুন্সিপাড়া এলাকার ফজলুল হক মোল্যার ছেলে মুন্সিপাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের পিয়ন কাম নৈশ প্রহরী নাজির হোসেন সোহাগ প্রতিদিনের ন্যায় মটর সাইকেলযোগে মুনজিতপুরের বাড়ি থেকে ঐ পথ দিয়ে স্কুলে যাচ্ছিল। এসময় দুবৃত্তরা গতিরোধ করে প্রথমে সোহাগের হাতে কোপ দেয়। তখন সে মটরসাইকেল থেকে পড়ে গেলে সন্ত্রাসীরা তার পায়ের পাতা ও হাটুতে কোপ দেয়। এসময় সোহাগ উঠতে গেলে গলায় ও মাথায় কোপ দিয়ে ফেলে রেখে দ্রুত পালিয়ে যায়। এব্যাপারে সদর হাসপাতালের ডা. রুহুল কুদ্দুস জানান, কোপানোর ধরন দেখে বোঝা যায় যে, তাকে হত্যার উদ্দেশ্য ছিল। সে অল্পের জন্য প্রাণে বেঁচে গেছে। তার গলার আঘাতটি অল্পের জন্য শিরা কাটেনি। তবে তার ডান পায়ের ২টি আঙ্গুল চাইনিজ কুড়ালের কোপে কেটে যাওয়ায় আঙ্গুলের অবস্থা ভালোনা। আঙ্গুল দুটি সেলাই করে দেওয়া হয়েছে। এব্যাপারে সদর থানার অফিসার ইনচার্জ মারুফ আহমেদ বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, আমি সদর হাসপাতালে আহত সোহাগকে দেখতে গিয়েছিলাম। সে এখন আশংঙ্খামুক্ত। এব্যাপারে আসামীদের গ্রেফতারের অভিযান অব্যাহত রয়েছে। এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত কোন আসামী গ্রেফতার হয়নি এবং আসামীদের বিরুদ্ধে মামলার প্রস্তুতি চলছিল বলে জানা গেছে।