তালার খেশরা গ্রামে ভূমিদস্যুদের হুমকিতে আতংকিত একটি সংখ্যালঘু পরিবার


72 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
তালার খেশরা গ্রামে ভূমিদস্যুদের হুমকিতে আতংকিত একটি সংখ্যালঘু পরিবার
জানুয়ারি ১৬, ২০১৮ তালা ফটো গ্যালারি
Print Friendly, PDF & Email

বি. এম. জুলফিকার রায়হান,তালা ::
তালার খেশরা গ্রামে সংখ্যালঘু নুটুল দাশের পৈত্রিক সুত্রে পাওয়া জমি জোরদখল করতে মরিয়া হয়ে উঠেছে স্থানীয় একটি ভূমিদস্যু গ্রুপ। জমি দখল চেষ্টাকে কেন্দ্র করে ভূমিদস্যূ দূর্বৃত্তদের একের পর এক হামলা ও হুমকিরমূখে আতংকিত হয়ে পড়েছে ভুক্তভোগী সংখ্যালঘু বিশ্বনাথ ওরফে নুটুল দাশ’র পরিবার। বর্তমানে ওই পরিবারটি অসহায় হয়ে পড়েছে। হামলা ও জমি দখল চেষ্টা ঘটনার প্রতিকার পেতে সাংবাদিক সম্মেলন করেছেন অসহায় নুটুল দাশ। মঙ্গলবার বিকালে তিনি তালা রিপোটার্স ক্লাবে উক্ত সাংবাদিক সম্মেলন করে উর্দ্ধতন প্রশাসনের আশু হস্তক্ষেপ কামনা করেন।
সাংবাদিক সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠকালে বিশ্বনাথ ওরফে নুটুল দাশ বলেন, তার পিতা মৃত. কালীপদ দাশ বাংলা ১৩৬০ সালের ২৮ ভাদ্র কোবলা দলিলমূলে (যার কোবলা দলিল নং-৩৪০০/৭০) খেশরা গ্রামের ছাতু লাল ঘোষ, নটবর ঘোষ ও ননী গোপাল ঘোষ দিং’র কাছ থেকে ২ একর ৯০ শতক জমি ক্রয় করেন। সেই থেকে অধ্যবদি বংশপরম্পরায় উক্ত জমিতে বসবাস ও চাষাবাদ করে আসছেন। কিন্তু উক্ত জমির মধ্যে ১ একর ৫২ শতক জমি এস.এ রেকর্ডে ভূলবশত অর্পিত সম্পত্তি হিসেবে রেকর্ড হয়। এই রেকর্ড সংশোধনের জন্য বিশ্বনাথ দাশ ওরফে নুটুল দাশ বাদী হয়ে মহামান্য হাইকোর্টে একটি মামলা (মামলা নং : ২৮৭/২০০০) দায়ের করেন। মামলাটি এখনও বিচারাধীন রয়েছে।
নুটুল দাশ বলেন, ভোগদখলে থাকা উক্ত জমি ভূল বশতঃ অর্পিত সম্পত্তি রেকর্ড হলে তা’ সংশোধনের জন্য মহামান্য হাইকোর্টে দায়ের করা মামলা চলমান রয়েছে। কিন্তু এরইমধ্যে একই এলাকার সাজ্জাত আলী কারিকর’র ছেলে নজরুল কারিকর এবং শরিয়াতুল্যা সানার ছেলে এনায়েত আলী সানা, শওকাত সানা ও বাবর আলী সানা গং পরস্পর যোগসাজসে ভিপি হওয়া উক্ত ১ একর ৫২ শতক জমি জোর দখল করার জন্য নানান অপচেষ্টা শুরু করে। জোর দখল চেষ্টাকারীরা সকলে এলাকায় দূর্বৃত্ত ও প্রভাবশালী ভূমিদস্যু হিসেবে চিহ্নিত। ওই জমি জোর দখল করার জন্য এনায়েত’র ছেলে শরিফুল ইসলাম মনা ও নজরুলের ছেলে পলাশ কারিকরের নেতৃত্বে ভাড়াটিয়া সন্ত্রাসীরা কয়েকবার হামলা করে। এমনকি ইতোমধ্যে সংখ্যালঘু নুটুল দাশের পিতা কালীপদ দাশের রোপন করা ২ লক্ষাধিক টাকা মূল্যের একাধিক মেহগনী, কাঠাল ও নারিকেল গাছ জোর করে কেটে নেয়। গাছগুলো কাটার সময় সন্ত্রাসীদের হুমকি ও হামলার মূখে অবরুদ্ধ সংখ্যালঘু পরিবারটি অসহায় হয়ে শুধুই চেয়ে চেয়ে দেখে!
নুটুল দাশ অভিযোগ করে বলেন, উক্ত ১একর ৫২শতক জমি জোর দখল করার জন্য দূর্বৃত্তরা প্রতিনিয়ত নানান হুমকি প্রদান করে যাচ্ছে। এরফলে যে কোনও সময় উক্ত জমি বেদখল হওয়া সহ সন্ত্রাসী হামলার বিষয়টি তালা থানা পুলিশ’র কাছে লিখিত অভিযোগ দায়ের করা হয়। কিন্তু পুলিশ যথাযথ আইনি সহযোগীতা দেননি। যে কারনে উক্ত প্রভাবশালী দূর্বৃত্তরা সংখ্যালঘু নুটুল দাশের ভোগ দখলীয় জমিতে যে কোনও সময় হামলা চালিয়ে জোর দখল করতে পারে এবং জান, মালের ক্ষতি করতে পারে বলে আশংকা সৃষ্টি হয়েছে। এতেকরে, আতংকের মধ্যে থাকা সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের বিশ্বনাথ ওরফে নুটুল দাশ উর্দ্ধতন প্রশাসনের আশু হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন।

###