সাতক্ষীরায় বসুন্ধরা খাতা-কালের কণ্ঠ জাতীয় স্কুল বিতর্ক প্রতিযোগিতা


257 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
সাতক্ষীরায় বসুন্ধরা খাতা-কালের কণ্ঠ জাতীয় স্কুল বিতর্ক প্রতিযোগিতা
মে ৭, ২০১৮ ফটো গ্যালারি সাতক্ষীরা সদর
Print Friendly, PDF & Email

স্টাফ রিপোর্টার ::
সাতক্ষীরায় উৎসব মুখর পরিবেশে বসুন্ধরা খাতা-কালের কণ্ঠ জাতীয় স্কুল বিতর্ক প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হয়েছে। সোমবার সকালে সাতক্ষীরা পাবলিক স্কুল এন্ড কলেজে জেলার আটটি স্কুলের শিক্ষার্থীদের নিয়ে এ প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হয়। কালের কণ্ঠ’র শুভসংঘ আয়োজিত এ বিতর্ক প্রতিযোগিতায় পৃষ্ঠপোষকতা করে বসুন্ধরা খাতা।
অনুষ্ঠিত বিকর্ত প্রতিযোগিতায় চ্যাম্পিয়ন হয়েছে সাতক্ষীরা সরকারী বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়। রানার্স-আপ হয়েছে সাতক্ষীরা সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়।
গতকাল সকাল ১০ টায় সাতক্ষীরা পাবলিক স্কুল এন্ড কলেজের হলরুমে অনুষ্ঠিত এ প্রতিযোগিতার উদ্বোধন করেন বিশিষ্ট শিক্ষাবিদ আনিছুর রহিম।
শুভসংঘের জেলা সভাপতি ফাহাদ হোসেনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন পাবলিক স্কুল এন্ড কলেজের আলাউদ্দীন ফারুকী প্রিন্স, প্রধান শিক্ষক কামাল উদ্দীন, সাতক্ষীরা সরকারী কলেজের শিক্ষক সিরাজুল ইসলাম, সরকারী বালিকা বিদ্যালয়ের শিক্ষক রবিউল ইসলাম, আনিছুর রহমান, বসুন্ধরা খাতার সহকারী কর্মকতা (বিক্রয়) মো: আনোয়ারুল ইসলাম গাজী, কালের কণ্ঠের বিজ্ঞাপন প্রতিনিধি শেখ আমিনুর রশিদ সুজন, শুভসংঘের জেলা কমিটির সম্পাদক নুরুল হুদা, সদস্য গাজী আসাদ, নাহিদ হাসান, আব্দুল কাদের, মফিজুল ইসলাম, জগন্নাথ, রোহিত হোসেন, বাহালুল করিম প্রমুখ।
প্রতিযোগিতায় অংশ গ্রহনকারীদের হাতে পুরস্কার, সদন ও ক্রেষ্ট প্রদন করেন, কালের কণ্ঠ’র সাতক্ষীরা প্রতিনিধি মোশাররফ হেসেন।
জেলার আটটি স্কুলের ২৪ জন অংশ গ্রহনকারী নির্ধারিত বিষয়ে পক্ষ ও বি-পক্ষ দলে ভাগ হয়ে প্রতিযোগিতায় মুখোমুখি হয়। এসময় শিক্ষার্থীদের এ প্রতিযোগিতা দেখতে চারটি হল রুমে দুই শতাধিক শিক্ষার্থীরা উপস্থিত থেকে বিতর্ক ও যুক্তি খন্ডন উপভোগ করে।
অনুষ্ঠানটি সঞ্চালনা করেন সাতক্ষীরা এম আর খান ডিভেডিং ক্লাবের সভাপতি রেজওয়ানুল আলম রিজভী।
প্রসঙ্গত; ফাইনাল রাউন্ডে তথ্য প্রযুক্তি নয়, কৃষি ভিত্তিক শিল্প ব্যবস্থার উন্নয়ন আমাদের বেশী প্রয়োজন-এর পক্ষে সাতক্ষীরা সরকারী উচ্চ বিদ্যালয়ের ছাত্র মোহায়মিনুল ইসলাম, এস এম সিয়াম ফেরদৌস ও মো: পারভেজ ইমাম অংশ গ্রহন করে। এদের বিপক্ষ দল হিসাবে সরকারী বালিকা বিদ্যায়য়ের মৌমিতা কর্মকার, মারজান বিনতে আমিনুল্লাহ ও প্রজ্ঞা পারমিতা রহমান অংশ গ্রহন করে।