কালিগঞ্জের তৌফিক ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে আম পাড়তে যেয়ে নিহত


1045 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
কালিগঞ্জের তৌফিক ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে আম পাড়তে যেয়ে নিহত
মে ৯, ২০১৮ কালিগঞ্জ ফটো গ্যালারি
Print Friendly, PDF & Email

সোহাগ হোসেন ::
“মধ্যরাতে আম পাড়ার মজাই আলাদা। আজ সাতজন বন্ধু মিলে এক মণ প্লাস আম পেড়ে হলের সব ভাইদের দিয়েছি এবং অনেকে তাদের ইয়ে মানে ইয়েদের জন্য আম সংরক্ষণ করে রেখেছে। যদি তাদের ইয়ে মানে ইয়ে এই পোস্টটি পড়ে থাকেন, তবে আপনার প্রাপ্য আম চেয়ে নিতে ভুলবেন না” কথাগুলো কেবল স্মৃতি হয়ে ফেসবুক টাইমলাইনে হয়ে রয়ে গেল।

শেখ ওমর তৌফিক, সাদামাটা একজন মানুষ।ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উর্দু বিভাগের প্রথম বর্ষের ছাত্র সে। তার গ্রামের বাড়ী সাতক্ষীরা জেলার কালিগজ্ঞ উপজেলার গনগতি গ্রামের আঃ গণির ছেলে।
গত ৩ মে তৌফিক তার নিজ ফেসবুক টাইমলাইনে স্টাটাস দেন, “আম আর আম। আমের রাজ্যে পৃথিবী মোহ ময়। তবে আমের কথা আর নাহি লিখি। এবার আপনারা বলুন, কে কোন হাতের আম চান?


আম অনেকে তো নিতে চেয়েছিল। সময় তো সব সে গতিকে থামিয়ে দিয়ে কালের স্রোতে ভানিয়ে নিয়ে চলে গেল।
গতকাল মঙ্গলবার রাতে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় মসজিদের পাশ্ববর্তী একটি আমগাছ থেকে পড়ে আহত হন তৌফিক। আজ বুধবার দুপুর দেড়টার দিকে রাজধানীর জাপান-বাংলাদেশ ফ্রেন্ডশিপ হাসপাতালের নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্রে (আইসিইউ) চিকিৎসাধীন অবস্থায় তাঁর মৃত্যু হয়।
এ অকাল প্রয়াত তৌফিকের মা বাবাসহ পরিবার ও আত্নীয় স্বজনরা কোন কিছুতেই মেনে নিতে পারছেন না।
জানা গেছে, তৌফিকে বাবা মা পাগল প্রায়। সন্তানের শোকে তৌফিকের মা বাবা বাকরুদ্ধ,স্তব্ধ হয়ে গেছেন। হয়তো তাদের সব কথা আর অপেক্ষা শেষের পথে। সেদিন খুব আনন্দ আর উদ্দীপনার মধ্যে দিয়ে বাড়ি থেকে ঢাবি নিজ ক্যাম্পাসের উদ্দেশ্যে চলে গেল। আজ ফিরছে লাশ হয়ে। মেনে নেওয়া খুব-ই কষ্টকর,অপূরণীয়।
তৌফিকের খুব কাছের বন্ধু মাসুম বিল্লাহ জানান, তৌফিকের সাথে আমার খুব ভাল সর্ম্পক্য ছিল। একটি বিষয়ে মনমালিন্য হওয়ায় আমি তৌফিকের সাথে কিছুদিন অভিমান করে কথা বলিনি। ভাবেছিলাম একদিন সব কথা খুলে বলবো। কিন্তু আর সময় হয়ে উঠলো না। তৌফিকের লাশ ঢাকা থেকে কালিগজ্ঞে আনা হচ্ছে।শুধু তার লাশের অপেক্ষায়। একটি বার দেখতে চাই।
তৌফিকের পরিবারের সদস্যদের সাথে কথা বলার চেষ্টা করলেও তারা সবাই স্তব্ধ।
তৌফিকের লাশ ঢাকা থেকে গ্রামে আনা হচ্ছে। তার সব আত্নীয় আর শুভাকাঙ্ক্ষীরা শুধু অপেক্ষায় তাকে শেষ দেখার জন্য। তৌফিক আসছে তবে লাশ হয়ে।