পাইকগাছা সংবাদ ॥ মৎস্য আড়ৎদারী সমবায় সমিতির নবনির্বাচিতদের অভিষেক


98 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
পাইকগাছা সংবাদ ॥ মৎস্য আড়ৎদারী সমবায় সমিতির নবনির্বাচিতদের অভিষেক
মে ২১, ২০১৮ খুলনা বিভাগ ফটো গ্যালারি
Print Friendly, PDF & Email

পাইকগাছা (খুলনা) প্রতিনিধি ॥
পাইকগাছা মৎস্য আড়ৎদারী সমবায় সমিতির কার্যনির্বাহী পরিষদের নবনির্বাচিত নেতৃবৃন্দের অভিষেক ও শপথ অনুষ্ঠান সোমবার সকালে সমিতির নিজস্ব কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত হয়েছে। একই অনুষ্ঠানে বিগত পরিষদ নেতৃবৃন্দকে বিদায়ী সংবর্ধনা প্রদান করা হয়। পুনরায় নির্বাচিত সভাপতি মোঃ আব্দুল জব্বারের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত থেকে নবনির্বাচিত নেতৃবৃন্দের শপথ বাক্য পাঠ করান উপজেলা সমবায় কর্মকর্তা মুকুন্দ বিশ্বাস। ষোলআনা ব্যবসায়ী সমবায় সমিতির সাবেক সাধারণ সম্পাদক সন্তোষ কুমার সরদারের পরিচালনায় অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন, ষোলআনা ব্যবসায়ী সমবায় সমিতির সাবেক সাধারণ সম্পাদক মিরাজুল ইসলাম মিরাজ, নবনির্বাচিত সহ-সভাপতি জিএম শুকুরুজ্জামান, সম্পাদক ইলিয়াস হোসেন, মৎস্য আড়ৎদারী সমবায় সমিতির সাবেক সাধারণ সম্পাদক স ম আব্দুর রব, বিশিষ্ট ব্যবসায়ী আলমগীর হোসেন, আলহাজ্ব আব্দুল মান্নান সানা, সাংবাদিক আব্দুল আজিজ ও এসএম আলাউদ্দিন সোহাগ। উপস্থিত ছিলেন, ইউপি সদস্য আবু হাসান, ষোলআনা ব্যবসায়ী সমিতির পরিচালক এটিএম নাহিদুজ্জামান, মৎস্য আড়ৎদারী সমবায় সমিতির নবনির্বাচিত সহ-সভাপতি বিল্লাল মোড়ল, সম্পাদক শাহীন ইকবল, কোষাধ্যক্ষ তাইজুল ইসলাম সানা, সাবেক কোষাধ্যক্ষ জাকির হোসেন, পরিচালক রেজাউল ইসলাম, বিশ্বজিৎ দাস, আবজালুর রহমান, মাঝহারুল ইসলাম, নূরুজ্জামান সানা, সরদার মোহাম্মদ আলী, আসলাম পারভেজ ও ইমাম ইয়াহিয়া।
###

পাইকগাছার মাহমুদকাটী মোড়ে যাত্রী ছাউনি ব্যবহার করে উন্নয়ন ধারার মার্কেট নির্মাণ; এলাকাবাসীর মধ্যে মিশ্র প্রতিক্রীয়া
পাইকগাছা (খুলনা) প্রতিনিধি ॥
পাইকগাছার মাহমুদকাটী মোড়ে যাত্রী ছাউনি ব্যবহার করে মার্কেট নির্মাণ করছে উন্নয়ন ধারা। মার্কেট নির্মাণ নিয়ে এলাকাবাসীর মধ্যে মিশ্র প্রতিক্রীয়া দেখা দিয়েছে। এলাকাবাসীর অভিযোগ উন্নয়ন ধারা কর্তৃপক্ষ জনস্বার্থ উপেক্ষা করে সরকারি গাছের চারা উপড়ে ফসলি জমির উপর কোটি টাকার মার্কেট নির্মাণ করছে। আর মার্কেট নির্মাণ করার যাবতীয় নির্মাণ সামগ্রী মজুদ করে রাখার জন্য ব্যবহার করছেন সরকারি যাত্রী ছাউনি। ভবিষ্যতে যে কোন মুহূর্তে উন্নয়ন ধারা কর্তৃপক্ষ যাত্রী ছাউনিটি ভেঙ্গে দিতে পারে বলে আশংকা করছেন এলাকাবাসী। রোববার বিকালে সরেজমিন গেলে এলাকার লোকজন এ ধরণের আশংকা করে উন্নয়ন ধারা কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে বিভিন্ন অভিযোগ করেন।


সূত্রমতে, উপজেলার হরিঢালী ব্রীজ সংলগ্ন প্রধান সড়কে জন গুরুত্বপূর্ণ মাহমুদকাটী মোড়ে যাত্রী ওঠা নামা ও বিশ্রামের জন্য ১৯৯৬ সালের দিকে সরকারি ভাবে নির্মাণ করা হয় একটি যাত্রী ছাউনি। যাত্রী ছাউনির পাশেই জমি কিনে বিলাস বহুল মার্কেট নির্মাণ কাজ করছেন উন্নয়ন ধারা নামে একটি সংস্থা। সংস্থাটি জনস্বার্থ উপেক্ষা করে মার্কেট নির্মাণ করছেন এবং যাবতীয় নির্মাণ সামগ্রী মজুদ করে রাখার জন্য যাত্রী ছাউনি ব্যবহার করছেন। এমন অভিযোগের প্রেক্ষিতে রোববার বিকালে সরেজমিন গেলে এলাকার লোকজন তাদের বিরুদ্ধে নানা বিধ অভিযোগ করেন। শফিকুল সরদার জানান, উন্নয়ন ধারা যেখানে নির্মাণ কাজ শুরু করেছে সেখানে সরকারি রাস্তার পাশ দিয়ে ৪/৫ হাত অন্তর সারি সারি মেহগনি ও শিরিস গাছের চারা লাগানো ছিল। মোঃ আছাদুল সরদার জানান, সরকারি সার্ভেয়ার মেপে সীমানা পিলার দিয়ে উন্নয়ন ধারার জায়গা নির্ধারণ করে রেখে যায়। পরবর্তীতে পিলার গুলো সরিয়ে সরকারি জায়গার মধ্যে ঢুকে গিয়ে উন্নয়ন ধারার লোকজন তাদের মার্কেট নির্মাণ কাজ করছে। এছাড়াও রাস্তার পাশ দিয়ে যে গাছ লাগানো ছিল তার কয়েকটা উপড়ে ফেলে দিয়ে তারা কাজ করছে। জেলা পরিষদ সদস্য নাহার আক্তার অভিযোগ করেন, এলাকার লোকজন আমার কাছে অভিযোগ করলে আমি সরেজমিন গিয়ে দেখি তাদের যাবতীয় নির্মাণ সামগ্রী যাত্রী ছাউনির মধ্যে মজুদ করে রেখেছে। এছাড়া সরকারি রাস্তার বেশিরভাগ জায়গা জুড়ে নির্মাণ সামগ্রী মিশ্রণের কাজ করছে। ফলে জন দূর্ভোগ হওয়ার পাশাপাশি দূর্ঘটনা ঘটছে। এ জন্য আমি তাদেরকে যাত্রী ছাউনি থেকে মালামাল বের করে নিতে বললে তারা তাদের নিজেদের প্রয়োজনে যাত্রী ছাউনি ব্যবহার করবে মর্মে আমাকে হুমকি দেয়। এ ব্যাপারে উন্নয়ন ধারার সদস্য শেখ সাদেক হোসেন জানান, যাত্রী ছাউনিটি আমাদেরই নির্মাণ করা। এ জন্য আমাদের প্রয়োজনে তা ব্যবহার করছি। তবে তিনি গাছ কাঁটার বিষয়টি স্বীকার করেন নি। সরকারি সার্ভেয়ার শাকিরুল ইসলাম জানান, সংশ্লিষ্ট যাত্রী ছাউনিটি সরকারি ও উন্নয়ন ধারার জায়গার মধ্যে অবস্থিত। তবে নির্মাণ সামগ্রী রাখার জন্য যাত্রী ছাউনি ব্যবহার করতে না পারায় এ জন্য উন্নয়ন ধারার লোকজনকে নিষেধ করে দিয়েছি। পাশাপাশি তারা যে জায়গার উপর নির্মাণ কাজ করছে তার দক্ষিণ পূর্ব পাশের আমাদের পুতে রাখা পিলার ৬ ইঞ্চি মত সরিয়ে ৩টি ভিম নির্মাণ করছে। বিষয়টি জানতে পেরে ঘটনাস্থলে গিয়ে ওই ৩টি ভিম নির্মাণ কাজ সাময়িক বন্ধ রাখা হয়েছে। বিষয়টি খতিয়ে দেখে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের দাবী জানিয়েছে সচেতন এলাকাবাসী।