তলুইগাছা সীমান্ত বিনা পাসপোর্ট ধারীদের অভয় অরণ্য


293 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
তলুইগাছা সীমান্ত বিনা পাসপোর্ট ধারীদের অভয় অরণ্য
জুলাই ৯, ২০১৮ কলারোয়া ফটো গ্যালারি
Print Friendly, PDF & Email

বদরুজ্জামান খোকা,বাঁশদহা ::
সাতক্ষীরা সদর উপজেলার পশ্চিমে ১নং বাঁশদহা ইউনিয়নের তলুইগাছার বিজিবি ক্যাম্প ঘেষে ভারত অবস্থিত। এ কারনে সীমান্ত দিয়ে নানা প্রকার অপরাধ প্রবনতা দিনের পর দিন বেড়ে যাচ্ছে। বিশেষ করে উঠতি বয়সী যুবকরা নানা ভাবে মাদকের উপর ঝুকে পড়ছে। সদর উপজেলার পশ্চিমে তলুইগাছা, কুশখালী,বৈকারী সীমান্ত ফাড়ি অবস্থিত। এসব সীমানা দিয়ে প্রতিদিন মাদক সহ বিভিন্ন অপরাধ সংঘটিত হচ্ছে। বিনা পাসপোর্ট ধারীরা আসা যাওয়া করছে। বিশেষ করে তলুইগাছা ও কুশখালী সীমান্ত দিয়ে বিনা পাসপোর্টে আসা যাওয়া ব্যক্তিদের মাধ্যমে মাদক, নারী,শিশু পাচার বেশি হচ্ছে। একারনে এক ধরণের অসাধু চক্র একটি সেন্টিগেটের মাধ্যমে মাদকের রমরমা ব্যবসা করে আসছে। সিন্টিগেটের এক সদস্য কে জিজ্ঞসা করা হলে তিনি বলেন অবৈধ্য ভাবে মানুষ পার করে সব টাকা আমরা নেই না। প্রসাশনের সবাইকে দিতে হয়। সিন্টিগেটের অপর সদস্যকে জিজ্ঞসা করা হলে বলেন প্রতিটি বিনা পাসপোর্ট ধারীদের নিকট হতে ১৫০০/= হতে ২০০০/= টাকা পর্যন্ত নেওয়া হয়। এর মধ্যে ৩০০/= টাকা যে বিজিবি সদস্য টহলে থাকে তাকে দিতে হয়। আর এসমন্ত টাকা ঘাট মালিক তলুইগাছার আব্দুল খালেক কে দিতে হয়। বিনা পাসপোর্ট ধারীদের কাছে জানতে চাইলে তারা বলেন অবৈধ্য পথে যেতে আমাদের অনেক সুবিধা আছে, যেমন দ্রুত পার হওয়া যাই এবং কোন ঝামেলা থাকেনা,ইচ্ছা মত ভারত হতে জিনিস আনা নেওয়া করা যাই। অন্য দিকে অবৈধ্য ভাবে ভারতে যাওয়া আসার ফলে বাংলাদেশ সরকার কোটি-কোটি টাকার ভ্যাট লোকসান হচ্ছে। এদিকে সীমান্ত ঘেষে এলাকা গুলো মাদকের ছড়াছড়ি এতই বেশি যে, উঠতি বয়সি যুবকেরা দিনের পর দিন এ মরণ নেশার দিকে নিজেদেরকে বিলিয়ে দিচ্ছে। এবিষয়ে গুরুত্ব সহকারে দেখার জন্য প্রশাসনের হস্তক্ষেপ একান্ত জনুরী বলে মনে করে সূধী সমাজ।
##