পাইকগাছা সংবাদ ॥ বিশ্ব জনসংখ্যা দিবস পালন


85 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
পাইকগাছা সংবাদ ॥ বিশ্ব জনসংখ্যা দিবস পালন
জুলাই ১১, ২০১৮ খুলনা বিভাগ ফটো গ্যালারি
Print Friendly, PDF & Email

এস, এম, আলাউদ্দিন সোহাগ ::
পাইকগাছায় র‌্যালি, আলোচনা সভা ও পুরস্কার বিতরণীর মধ্য দিয়ে বিশ্ব জনসংখ্যা দিবস উদযাপিত হয়েছে। দিবসটি উপলক্ষে উপজেলা পরিবার পরিকল্পনা বিভাগের উদ্যোগে বুধবার সকালে এক বর্ণাঢ্য র‌্যালি উপজেলা সদরের প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ করে। পরে উপজেলা পরিবার পরিকল্পনা অফিস মিলনায়তনে উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ ফকরুল হাসানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত আলোচনা সভা ও পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন, উপজেলা চেয়ারম্যান এ্যাডঃ স ম বাবর আলী। স্বাগত বক্তব্য রাখেন, উপজেলা পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা এসএম কবির হোসেন। বিশেষ অতিথি ছিলেন, উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা প্রশান্ত কুমার রায়, এমওএমসিএইচ কর্মকর্তা ডাঃ জয়ব্রত ঘোষ, ইউপি চেয়ারম্যান কওছার আলী জোয়াদ্দার, পাইকগাছা প্রেসক্লাবের সহ-সভাপতি মোঃ আব্দুল আজিজ। পরিবার পরিকল্পনা পরিদর্শক রাজিব গাঙ্গুলীর পরিচালনায় বক্তব্য রাখেন, সুশীলনের জাহানারা নার্গিস শোভা, কেয়ার বাংলাদেশের জহিরুল হক, পরিবার কল্যাণ সহকারী সীতা রানী দাশ, পরিবার কল্যাণ পরিদর্শিকা শিল্পী আক্তার তমা। অনুষ্ঠানে পরিবার পরিকল্পনা কার্যক্রমে বিশেষ অবদানের স্বীকৃতি স্মরূপ কপিলমুনি ইউনিয়ন স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ কেন্দ্র কপিলমুনি ইউনিয়ন পরিষদ, পরিবার কল্যাণ পরিদর্শিকা স্মিতা রানী দাশ, পরিবার কল্যাণ সহকারী জাহানারা বেগম জয়া ও পরিবার পরিকল্পনা পরিদর্র্শক অভিজিৎ কুমার মন্ডলকে সম্মাননা পুরস্কার প্রদান করা হয়।
##

অবশেষে পাইকগাছা-কয়রার সীমান্তবর্তী আলোচিত গাংরখী-শালুকখালী নদী উন্মুক্ত বহাল রাখার সিদ্ধান্ত
এস, এম, আলাউদ্দিন সোহাগ ::
অবশেষে সকল জল্পনা-কল্পনার অবসান ঘটিয়ে পাইকগাছা-কয়রার সীমান্তবর্তী আলোচিত গাংরখী-শালুকখালী নদী উন্মুক্ত রাখার সিদ্ধান্ত বহাল রাখা হয়েছে। গত ৪ জুলাই সংশ্লিষ্ট ভূমি মন্ত্রণালয়ের ৪৮তম সভায় এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয় বলে মন্ত্রণালয়ের উপ-সচিব মোঃ তাজুল ইসলাম মিয়া স্বাক্ষরিত স্বারকে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। অবশেষে মন্ত্রণালয়ের অবমুক্ত বহাল রাখার সিদ্ধান্তকে সাধুবাদ জানিয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা, ভূমি মন্ত্রী শামসুর রহমান শরীফ, মৎস্য মন্ত্রী নারায়ন চন্দ্র চন্দ ও সংসদ সদস্য আলহাজ্ব এ্যাডঃ শেখ মোঃ নূরুল হকের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেছেন এলাকাবাসী।

উল্লেখ্য, পাইকগাছার গড়ইখালী ও কয়রা উপজেলার মহেশ্বরীপুর ইউনিয়নের সীমান্তবর্তী ৬০ একর আয়তনের ৭ কিলোমিটার দীর্ঘ গাংরখী-শালুকখালী নদী স্থানীয় গড়ইখালী মৎস্যজীবি সমবায় সমিতির সভাপতি ও গড়ইখালী ইউনিয়ন কৃষকলীগের আহবায়ক কামরুল ইসলাম গাইন ইজারা নিয়ে দীর্ঘদিন মৎস্য চাষ করে আসছিল। এলাকাবাসীর অভিযোগ নদীর বিভিন্ন স্থানে নেট-পাটা দিয়ে মাছ চাষ করার কারণে পানি নিস্কাষন ব্যবস্থা মারাত্মকভাবে বিঘিœত হয়। ফলে যার বিরুপ প্রভাব পড়ে এলাকার কৃষি উৎপাদনের উপর। পাশাপাশি যেসব পরিবার নদীর মাছ ধরে জীবিকা নির্বাহ করতো অসহায় হয়ে পড়েন এমন অসংখ্য পরিবার। ফলে এলাকাবাসী নদীটি অবমুক্ত করার জন্য দীর্ঘদিন দাবী জানিয়ে আসছিল। এ নিয়ে এলাকার লোকজন মানববন্ধন ও একাধিক প্রতিবাদ সমাবেশও করে। ২০১৪ সালে আলহাজ্ব এ্যাডঃ শেখ মোঃ নূরুল হক সংসদ সদস্য নির্বাচিত হয়ে এলাকাবাসীর দাবীর সাথে একমতপোষণ করে নদীটি অবমুক্ত করার প্রতিশ্র“তি দেন। প্রতিশ্র“তি অনুযায়ী তিনি এলাকার ৬টি নদী অবমুক্ত করার জন্য সংশ্লিষ্ট ভূমি মন্ত্রণালয় বরাবর ডিও লেটার প্রদান করেন। যার প্রেক্ষিতে ২০১৪ সালের ১০ নভেম্বর ভূমি মন্ত্রণালয়ের ২৯তম সভায় এলাকার পোল্ডার অভ্যান্তরে স্লুইচ গেইট যুক্ত মরা কুচিয়া নদী, নড়া নদী, গাছুয়া নদী, উলুবুনিয়া নদী, ঘোষখালী নদী ও শালিকখালী (গাংরখী) নদী উন্মুক্ত রাখার সিদ্ধান্ত গৃহিত হয়। সংসদ সদস্যের সুপারিশের আলোকে মন্ত্রণালয়ের সিদ্ধান্তগৃহিত জলমহলগুলো লীজের মেয়াদ শেষ হওয়ার পর থেকে উন্মুক্ত রাখার জন্য সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষকে নির্দেশনা প্রদান করা হয়। মন্ত্রাণালয়ের সিদ্ধান্ত মোতাবেক ১৪২৪ সনের ৩০ চৈত্র ইজারার মেয়াদ শেষ হলে সংসদ সদস্য আলহাজ্ব এ্যাডঃ শেখ মোঃ নূরুল হক চলতি বছরের ১৫ এপ্রিল এলাকাবাসীকে সাথে নিয়ে নিজেই নদীতে নেমে নদীর সকল অবৈধ নেট-পাটা অপসারণ করে আলোচিত গাংরখী-শালুকখালী নদী অবমুক্ত ঘোষণা করেন। দীর্ঘদিনপর নদীটি অবমুক্ত হওয়ায় এলাকাবাসী এ দিন এলাকায় আনন্দ মিছিল করে সংসদ সদস্যকে সংবর্ধনা প্রদান করেন। এদিকে অবমুক্ত করার আড়াই মাস যেতে না যেতেই পুনরায় নদীটি ইজারা দেওয়ার চেষ্টা চলছে বলে অভিযোগ উঠেছে। গত ১৯ জুন প্রধানমন্ত্রীর অর্থনৈতিক বিষয়ক উপদেষ্টা ড. মসিউর রহমান সরকারি রাজস্ব আদায়ের স্বার্থে নদীটি পুনরায় ইজারা দেওয়ার জন্য ভূমি মন্ত্রী শামসুর রহমান শরীফ বরাবর ডিও লেটার প্রদান করেন। যা নিয়ে গত কয়েকদিন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে তোড়পাড় সৃষ্টি হয়েছে। যদিও উপদেষ্টার আগে মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রী নারায়ণ চন্দ্র চন্দ এমপি প্রতিমন্ত্রীর দায়িত্বে থাকা কালীন ২০১৭ সালের ২৯ নভেম্বর ভূমি মন্ত্রণালয় বরাবর ইজারা প্রদান সংক্রান্ত অনুরূপ আরেকটি ডিও লেটার প্রদান করেন। উন্মুক্ত নদীটি পুনরায় ইজারা চেষ্টার ঘটনায় সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমের ন্যায় এলাকায়ও ব্যাপক তোড়পাড় সৃষ্টি হয়। এদিকে ইজারা সংক্রান্ত পূর্বের দেওয়া ডিও পত্র কার্যকার না করার অনুরোধ জানিয়ে গত ১০ জুলাই সর্বশেষ আরেকটি ডিও পত্র দিয়েছেন মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রী নারায়ন চন্দ্র চন্দ এমপি। ডিও পত্রে মন্ত্রী উল্লেখ করেছেন, দুই উপজেলার সীমান্তবর্তী গাংরখী-শালুকখালী বদ্ধ নদীর দুই পারে ২০ হাজার মানুষের বসবাস। নদী সংলগ্ন এলাকায় ১০ হাজার বিঘা ফসলী জমি রয়েছে। এছাড়াও স্থানীয় সংসদ সদস্য আলহাজ্ব এ্যাডঃ শেখ মোঃ নূরুল হকের আবেদনের প্রেক্ষিতে ভূমি মন্ত্রণালয়ের ২৯তম সভায় জলমহলটি উন্মুক্ত রাখার সিদ্ধান্ত গৃহিত হয়। তাছাড়া দুই উপজেলার সীমান্তবর্তী জনগোষ্ঠীর বসবাস ও ফসল উৎপাদন এবং পানি নিষ্কাসনের স্বার্থে জলমহলের স্লুইচ গেইটটি উন্মুক্ত রাখা বিশেষ প্রয়োজন। এমতবস্থায় জলমহলটি জনসাধারণের জন্য উন্মুক্ত রাখতে মন্ত্রী বিশেষ অনুরোধ করেন।
##


পাইকগাছার সাংবাদিকদের সাথে সাবেক এমপি’র মতবিনিময়
এস, এম, আলাউদ্দিন সোহাগ ::
পাইকগাছার সাংবাদিকদের সাথে মতবিনিময় করেছেন আওয়ামীলীগের সাবেক সংসদ সদস্য এ্যাডঃ সোহরাব আলী সানা। তিনি বুধবার সকালে প্রেসক্লাব মিলনায়তনে এলাকার কর্মরত সাংবাদিকদের সাথে মতবিনিময় করেন। এ সময় তিনি দীর্ঘদিনের ব্যক্তিগত রাজনৈতিক কর্মকান্ডের কথা উল্লেখ করে আগামী একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে আওয়ামীলীগের দলীয় মনোনয়ন প্রত্যাশা করে বলেন, আমি এ পর্যন্ত দুই বার দল থেকে দলীয় মনোনয়ন পেয়েছি। যার মধ্যে ২০০৮ সালে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হয়েছিলাম। আগামী নির্বাচনেও আমি দলের কাছে মনোনয়ন প্রত্যাশা করবো। তবে এ ক্ষেত্রে দল যাকে প্রার্থী চূড়ান্ত করবেন আমি দলীয় নেতাকর্মীদের নিয়ে তার পক্ষে কাজ করবো। মতবিনিময় কালে দলীয় নেতাকর্মীদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, আওয়ামীলীগনেতা আনোয়ার ইকবাল মন্টু, শেখ বেনজির আহম্মেদ বাচ্চু, বিভূতি ভূষণ সানা, শংকর দেবনাথ, সাবেক চেয়ারম্যান আনিছুর রহমান, শফিকুল ইসলাম শফি, জিএম ইকরামুল ইসলাম, শেখ আবুল কালাম আজাদ, সবুর হোসেন, বিমল পাল, পঞ্চানন সানা, শেখ মিথুন মধু, শেখ হারুনুর রশীদ হিরু, আব্দুল জব্বার বাবলু, শিমুল গাজী, রমজান সরদার ও মীর শাহিন হোসেন।
##


পাইকগাছায় দলীয় নেতাকর্মী ও এলাকাবাসীর সাথে এমপি নূরুল হকের মতবিনিময়
এস, এম, আলাউদ্দিন সোহাগ ::
ভারতে স্বাস্থ্য পরীক্ষা থেকে দেশে এসে দলীয় নেতাকর্মী ও এলাকাবাসীর সাথে মতবিনিময় করেছেন পাইকগাছা-কয়রার সংসদ সদস্য আলহাজ্ব এ্যাডঃ শেখ মোঃ নূরুল হক। তিনি বুধবার দুপুরে পৌর সদরস্থ রাজনৈতিক কার্যালয়ে দলীয় নেতাকর্মী ও এলাকাবাসীর সাথে মতবিনিময় করেন। এ সময় অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, জেলা আওয়ামীলীগনেতা আলহাজ্ব শেখ মনিরুল ইসলাম, আওয়ামীলীগনেতা আবুল বাশার বাবুল সরদার, আলহাজ্ব মুনছুর আলী গাজী, বিজন বিহারী সরকার, আফসার উদ্দীন মোল্লা, মুক্তিযোদ্ধা জামাত আলী, যুবলীগনেতা শেখ রাশেদুল ইসলাম রাসেল, মামুনুল হক, শেখ মাসুদুর রহমান, মিনারুল ইসলাম সানা, আব্দুল হাই আজাদ, প্রভাষক ময়েজ উদ্দীন, উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি এসএম মশিয়ার রহমান, পৌর সভাপতি মাসুদ পারভেজ রাজু, আসিফ ইকবাল রনি, সঞ্জয় ঘোষ, ছাত্রলীগনেতা মেহেদী হাসান ও রাসেল।
##