আবাসিক হোটেলে কিশোরীর লাশ : ভগ্নিপতি গ্রেফতার


102 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
আবাসিক হোটেলে কিশোরীর লাশ : ভগ্নিপতি গ্রেফতার
জুলাই ১৮, ২০১৮ জাতীয় ফটো গ্যালারি
Print Friendly, PDF & Email

অনলাইন ডেস্ক ::
ঢাকার মগবাজারের হোটেল বৈকালীতে কিশোরীকে হত্যার অভিযোগে আসামি সুমনকে (২৬) গ্রেফতার করেছে র‌্যাব। সুমন ওই কিশোরীর ভগ্নিপতি।

বুধবার ভোরে মিরপুরের পাইকপাড়া থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয় বলে নিশ্চিত করেছেন র‌্যাবের লিগ্যাল ও মিডিয়া উইংয়ের প্রধান মুফতি মাহমুদ খান।

খুন হওয়া কিশোরীর নাম বৃষ্টি (১৬)। সোমবার সকালে পুলিশ তার লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য বিকেলে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে পাঠায়।

পুলিশ জানায়, সোমবার ভোরে স্বামী-স্ত্রী পরিচয়ে ভুয়া নাম দিয়ে বৃষ্টি ও সুমন মগবাজারের বৈকালী হোটেলের ৪০৭ নম্বর কক্ষ ভাড়া নেন। কিছুক্ষণ পর রিয়াজ নাশতা আনার কথা বলে বের হয়ে ঘণ্টা খানেক পর আসেন। এর কিছুক্ষণ পর রিয়াজ হোটেলের লোকজনকে বলেন, প্রিয়া গলায় ফাঁস দিয়েছে। হোটেলের লোকজন এলে রিয়াজ নিজেই ঝুলন্ত অবস্থায় প্রিয়াকে ওপর থেকে নামিয়ে মাথায় পানি দিতে থাকেন। একপর্যায়ে কৌশলে রিয়াজ সেখান থেকে পালিয়ে যান। হোটেল কর্তৃপক্ষ বিষয়টি থানায় জানায়। পরে পুলিশ লাশ উদ্ধার করে মর্গে পাঠায়। স্বজনেরা মর্গে এসে লাশ শনাক্ত করেন। ওই ঘটনায় সেদিনই সুমনকে একমাত্র আসামি করে রমনা থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করা হয়।

সুমন বেসরকারি একটি টেলিভিশনের গাড়ি চালক হিসেবে কাজ করতেন। তিনি প্রায় আট বছর আগে বৃষ্টির বোন হাসনা বেগমকে বিয়ে করেন। পরে তিনি আরও একটি মেয়েকে বিয়ে করেছেন বলে জানায় পুলিশ। বৃষ্টি তেজগাঁও এলাকায় একটি পোশাক কারখানায় কাজ করত।