সাতক্ষীরায় বিএনপি নেতার বিরুদ্ধে এক ইউপি মেম্বরের সংবাদ সম্মেলন


173 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
সাতক্ষীরায় বিএনপি নেতার বিরুদ্ধে এক ইউপি মেম্বরের সংবাদ সম্মেলন
জুলাই ২১, ২০১৮ ফটো গ্যালারি সাতক্ষীরা সদর
Print Friendly, PDF & Email

স্টাফ রিপোর্টার ::
সাতক্ষীরায় মাছের ঘের করার জন্য পানি নিষ্কাশনের কালভার্ট বন্ধ রাখা ও সরকারি রাস্তা কেটে পাইপ বসানোর প্রতিবাদ করায় স্থানীয় ইউপি মেম্বরসহ নিরীহ গ্রামবাসীর নামে মিথ্যে ও হয়রানি মূলক অভিযোগের প্রতিবাদ করেছেন এলাকাবাসী। শনিবার দুপুরে সাতক্ষীরা প্রেসক্লাবে এক সংবাদ সম্মেলনে এলাকাবাসীর পক্ষে এই প্রতিবাদ জানান তালা উপজেলার আড়ংপাড়া গ্রামের মৃত মোকাম আলী গাজীর ছেলে তেঁতুলিয়া ইউপি’র ১ নং ওয়ার্ডের মেম্বর মোঃ বাবুর আলী গাজী।
লিখিত বক্তব্যে তিনি বলেন, যশোরের কেশবপুর উপজেলার হাসাপুর ইউনিয়নের আবুল সরদারের ছেলে বিএনপি নেতা পলাশ সরদার জমি ইজারা নিয়ে মাছের ঘের করার সময় এলাকার পানি নিষ্কাশনের ৬টি কালভার্টের সব কয়টি বন্ধ করে দেয়। এছাড়া বর্ষা মৌসুমে তার ঘের যাতে সুরক্ষিত থাকে সেজন্য গভীর রাতে সরকারি রাস্তা কেটে তলা দিয়ে ৬টি পাইপ বসানোর চেষ্টা করে। এলাকাবাসী প্রতিবাদ করলে সাময়িক বন্ধ রাখে। কিন্তু পরবর্তীতে পলাশ একই এলাকার আব্দুল্লাহ গোলদারের ছেলে ছাত্রদলের ক্যাডার আজমল হোসেন জুয়েলসহ জামায়াত-বিএনপির ক্যাডারদের মোটা অংকের টাকার বিনিময় ম্যানেজ করে ফের ওই পাইপ বসায়। বর্ষা মৌসুমে ওই পাইপের মুখ ছেড়ে দিলে এলাকার শত শত বিঘা জমির ধান ও অন্যান্য ফসল পানিতে ডুবে নষ্ট হয়ে যাবে। ফলে ক্ষতিগ্রস্থ হবে এলাকার হাজারো মানুষ। আমি এঘটনার প্রতিবাদ করে প্রশাসনকে জানালে জেলা প্রশাসকের নির্দেশে এসিল্যান্ড পলাশকে নোটিশ প্রদান করেন। ঘটনাস্থল পরিদর্শনের সময় এসিল্যান্ডের উপস্থিতিতে সুচতুর পলাশ রাস্তা সংষ্কার করে দিলেও পাইপ পূর্বের অবস্থায় রেখে দেয়। এছাড়া কালভার্ট গুলোর মুখ খুলে দেয়ার নির্দেশ দিলেও এখনো চারটি কালভার্টের মুখ বন্ধ রয়েছে।
তিনি অভিযোগ করে বলেন, এঘটনার পর থেকে আমাকে ঞয়রানি করার জন্য পলাশের ভাড়াটিয়া দুবৃত্ত জুয়েলের নেতৃত্বে প্রশাসনের বিভিন্ন দপ্তরে আমার বিরুদ্ধে মিথ্যে অভিযোগ করা হয়। এলাকার মানুষের জন্য কাজ কারায় আমাকে সামাজিক ভাবে হেয়প্রতিপন্ন করতে এধরনের মিথ্যে অভিযোগ করা হয়েছে। অথচ জুয়েল তালাসহ জেলার বিভিন্ন এলাকায় নিজেকে বিভিন্ন গোয়েন্দা সংস্থার লোক পরিচয় দিয়ে মানুষকে জিম্মি করে লক্ষ লক্ষ টাকা চাঁদাবাজি করে যাচ্ছে। আমি আওয়ামী লীগের একজন সক্রিয় কর্মী ও জনপ্রতিনিধ হয়েও বিএনপি নেতা পলাশ এবং তার ভাড়াটিয়া জুয়েলের ষড়যন্ত্রের শিকার হচ্ছি। তিনি পলাশ ও জুয়েল গংদের মিথ্যে ষড়যন্ত্রের হাত থেকে রক্ষা পেতে সাতক্ষীরা পুলিশ সুপারসহ সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের জরুরী হস্তক্ষেপ কামনা করেন।

##