সাতক্ষীরায় বজ্রপাতে তিন জন নিহত : দগ্ধ দুই


1394 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
সাতক্ষীরায় বজ্রপাতে তিন জন নিহত : দগ্ধ দুই
সেপ্টেম্বর ১২, ২০১৮ আশাশুনি কালিগঞ্জ ফটো গ্যালারি
Print Friendly, PDF & Email

*মেঘ দেখলেই  নিরাপদ আশ্রয় খুঁজছে মানুষ

*বজ্রপাতে তিন জন নিহত

১.আশাশুনিতে এক জন

২. কালিগঞ্জে দুই জন

এস কে হাসান / গোপাল কুমার মন্ডল ::
সাতক্ষীরার আশাশুনিতে তাসেল (৩২) বজ্রপাতে নিহত হয়েছে এবং সাতক্ষীরার কালিগঞ্জ উপজেলার চম্পাফুল বাজার এলাকায় বজ্রপাতে ৮ম শ্রেণী পড়ুয়া দুই স্কুল ছাত্রী নিহত হয়েছে। আহত হয়েছে একই ক্লাসের আরো দুই স্কুল ছাত্রী।
নিহত বিলকীস খাতুন (১৪) । সে কালিগঞ্জের সাইহাটি গ্রামের বিল্লাল খার মেয়ে। ও সাতক্ষীরা সদরে নিয়ে যাওয়ার পথে ময়না খাতুন (১৪) মারা যান। সে চম্পাফুল গ্রামের আকবর শেখের মেয়ে।
আহতরা হলো- বালাপোতা গ্রামের রহিম শেখের মেয়ে রুবিনা (১৩) ও একই উপজেলার তেঁতুলিয়া গ্রামের হায়দার আলীর মেয়ে সাথি (১৪)। এরা সবাই চম্পাফুল হাইস্কুলের ৮ম শ্রেণীর ছাত্রী।

কালিগঞ্জ থানার ওসি হাসান হাফিজুর রহমান ঘটনা নিশ্চিত করে ভয়েস অব সাতক্ষীরাকে বলেন, বুধবার বিকেল সাড়ে ৪ টার দিকে তারা চার বান্ধবি একসাথে স্কুলে প্রাইভেট পড়তে যাচ্ছিলো। তারা চম্পাফুল বাজার এলাকায় পৌছালে বিকট শব্দে বজ্রপাত ঘটে। এতে ৪ জন আহত হয়। স্থানীয় লোকজন তাদেরকে উদ্ধার করে পাশ্ববর্তী আশাশুনি উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে সেখানে কর্তব্যরত চিকিৎসক বিলকীস খাতুনকে মৃত ঘোষণা করেন। বাকী তিন জনকে প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে সাতক্ষীরা সদর হাসপাতালে স্থান্তর হয়েছে। তাদের অবস্থাও আশংকাজনক বলে জানাগেছে।

অপরদিকে আশাশুনি উপজেলার খাজরা ইউনিয়নের কাপসন্ডা গ্রামের মৃত খোদাবক্স গাজীর পুত্র তাছেল গাজী (৩২) একই গ্রামের খালিদ হোসেনের মৎস্য ঘেরে কর্মচারী হিসাবে কর্মরত ছিলেন। বিকালে তিনি ঘেরের মধ্যে মাছ ধরার আটন (ঘুনি) বসাচ্ছিলেন। এসময় তার উপর বজ্রপাত হলে ঘটনাস্থানেই তার মৃত্যু হয়। তিনি বাড়িতে না ফেরায় সন্ধ্যার দিকে খোজাখুজির পর তাকে ঘেরের পানিতে মৃত্যুাবস্থায় ভাসতে দেখে উদ্ধার করা হয়।
##