নরসিংদীতে পুলিশের সঙ্গে এলাকাবাসীর সংঘর্ষে আহত ৪


66 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
নরসিংদীতে পুলিশের সঙ্গে এলাকাবাসীর সংঘর্ষে আহত ৪
সেপ্টেম্বর ১৪, ২০১৮ জাতীয় ফটো গ্যালারি
Print Friendly, PDF & Email

অনলাইন ডেস্ক ::

নরসিংদীর শিবপুরে পুলিশের সঙ্গে এলাকাবাসীর সংর্ঘষের ঘটনা ঘটেছে। এ ঘটনায় ২ পুলিশ সদস্যসহ মোট ৪ জন আহত হয়েছেন।

শুক্রবার বেলা সাড়ে ১১ টার দিকে উপজেলার চৈতন্যা এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

আহতরা হলেন- ইটাখোলা পুলিশ ফাঁড়ির কনস্টেবল মাহাবুব (৩২) ও বিল্লাল হোসেন (৩১) এবং চৈতন্যা এলাকার খোরশেদ মিয়ার পুত্র অহিদ উল্লা (৩০) ও বাচ্চু মিয়ার পুত্র মোহন (৪০)।

প্রত্যক্ষদর্শী সূত্রে জানা যায়, শুক্রবার বেলা ১১টার দিকে কয়েকজন পুলিশ সদস্য চৈতন্যা বাসস্ট্যান্ডের কাছে ঢাকা-সিলেট মহাসড়কের দু’পাশে বিভিন্ন ফলফলাদি ও সবজি বিক্রেতাদের উচ্ছেদের নামে তাদের কাছ থেকে চাঁদা দাবি করে। চাঁদা দিতে অস্বীকৃতি জানালে পুলিশ তাদের গ্রেফতারের ভয় দেখায়। এক পর্যায়ে তাদের সঙ্গে পুলিশের হাতাহাতি শুরু হয়। পুলিশ নিরূপায় হয়ে তাদের উপর গুলি চালালে অহিদ ও মোহন নামে দু’জন গুলিবিদ্ধ হয়। গুলিবিদ্ধের ঘটনা শোনার পর পুরো এলাকাবাসী ক্ষুব্ধ হয়ে পুলিশের উপর চড়াও হয়। এসময় ইট-পাটখেলের আঘাতে ২ পুলিশ সদস্য আহত হয়।

আহতদের উদ্ধার করে নরসিংদী জেলা হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। পরে উন্নত চিকিৎসার জন্য তাদেরকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে ভর্তি করা হয়েছে।

ঘটনার পর পর আহতদের দেখতে ও তাদের চিকিৎসার খোঁজখবর নিতে নরসিংদী জেলা হাসপাতালে ছুটে যান স্থানীয় সংসদ সদস্য সিরাজুল ইসলাম মোল্লা ও শিবপুর উপজেলা চেয়ারম্যান আরিফুল ইসলাম মৃধা।

ইটাখোলা হাইওয়ে পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ (উপ-পরিদর্শক) হাফিজুল ইসলাম বলেন, মহাসড়ক থেকে অবৈধ দোকান-পাট উচ্ছেদ করতে চৈতন্যা এলাকায় অভিযান চালানোর সময় অবৈধ ব্যবসায়ীরা পুলিশের উপর ক্ষিপ্ত হয় এবং ইট-পাটকেল ছুড়ে মারে। আত্মরক্ষার্থে পুলিশ গুলি চালায়।