কলারোয়ায় রং-তুলির শেষ আচড়ে প্রস্তুত দূর্গোৎসবের প্রতিমা


152 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
কলারোয়ায় রং-তুলির শেষ আচড়ে প্রস্তুত দূর্গোৎসবের প্রতিমা
অক্টোবর ৯, ২০১৮ কলারোয়া ফটো গ্যালারি
Print Friendly, PDF & Email

কে এম আনিছুর রহমান ::
সাতক্ষীরার কলারোয়ায় রং-তুলির শেষ আচড়ে প্রস্তুত দূর্গোৎসবের প্রতিমা। বৃষ্টিবিহীন শরৎ আকাশ, শিউলি ফুল দেখা যাক আর নাই যাক, মা আসছেন বছর ঘুরে। পূজো মানেই মনের ভিতর- দারুন উথাল পাথাল, পূজা মানেই মিষ্টি সাজে সিন্ধ শরৎ সকাল। কাঁশফুলের হাতটি ধরে- ঢাকে পড়বে কাটি, শুনে দেখো পূজা আসতে- আর কটা দিন বাকি। হ্যা, আগামনি ১৪ অক্টোবর পঞ্চমীর মধ্যে দিয়ে শুরু হতে চলেছে সনাতন ধর্মাবলম্বীদের সবচেয়ে বড় ধর্মীয় উৎসব শারদীয়া দূর্গাপূজা। আর পূজাকে ঘিরে ব্যস্ততম সময় পার করছেন আয়োজক কমিটি, ডেকোরেশন, লাইটিং, প্রতিমা ভাস্করসহ সাউন্ড সিস্টেমের কর্মীরা। রং-তুলিতে প্রস্তুত দূর্গোৎসবের প্রতিমা। এ বছর কলারোয়া উপজেলাব্যাপি ৪২টি পৃজা মন্ডপে দূর্গোৎসবের আয়োজন করা হয়েছে বলে জানা গেছে। এরমধ্যে পৌরসভার মধ্যে ৮টি ও ১২টি ইউনিয়নে ৩৪টি। জানা গেছে, দেয়াড়া ইউনিয়নের দেয়াড়া ঘোষপাড়া মাতৃমন্দিরে এবার ১৫১টি বিভিন্ন ধরনের দেবদেবতার মূর্তি তৈরি করেছেন আয়োজকরা। তুলসীডাঙ্গা ঘোষপাড়া মাতৃপূজা মন্ডপের ভাস্কর রবিন পাল জানান, প্রতিমার রং-তুলির কাজ প্রায় শেষ। অধিক রাত পর্যন্ত করতে হচ্ছে। এ বছর তিনি ১২টি প্রতিমা তৈরির কাজ করছেন। উপজেলা পূজা উদযাপন পরিষদের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক সন্তোষ পাল জানান,প্রতিটি মন্দিরে নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে প্রশাসনের পাশাপাশি নিজেদের স্বেচ্ছাসেবক সদস্যরা নিয়োজিত থাকবে। ঝুঁকিপূর্ণ মন্ডপগুলো সি.সি ক্যামেরার আওতায় আনা হচ্ছে। মন্দিরগুলো সার্বিক তত্বাবধায়ন ও যোগাযোগ রাখতে হিন্দু-বৌদ্ধ-খৃষ্টান ঐক্য পরিষদের সাধারণ সম্পাদক সন্দীপ রায়ের নেত্বত্বে একটি দল পর্যবেক্ষণ করবেন। ১৯ অক্টোবর শুক্রবার প্রতিমা বির্সজনের মধ্য দিয়ে সমাপনি হবে শারদীয় দূর্গোৎসব।
##