কনস্যুলেটেই হত্যা করা হয় খাসোগিকে, স্বীকার সৌদি আরবের


148 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
কনস্যুলেটেই হত্যা করা হয় খাসোগিকে, স্বীকার সৌদি আরবের
অক্টোবর ২০, ২০১৮ প্রবাস ভাবনা ফটো গ্যালারি
Print Friendly, PDF & Email

অনলাইন ডেস্ক ::
সাংবাদিক জামাল খাসোগিকে হত্যার কথা স্বীকার করেছে সৌদি আরব। দেশটির রাষ্ট্রীয় টেলিভিশনে প্রাথমিক তদন্তের উদ্ধৃতি দিয়ে বলা হয়েছে, তুরস্কের ইস্তাম্বুলে কনস্যুলেটের ভেতরে খাসোগিকে হত্যা করা হয়। খবর বিবিসি ও রয়টার্সের।

শনিবার বিবিসির প্রতিবেদনে বলা হয়, খাসোগি সৌদি কনস্যুলেটে প্রবেশ করার পর কয়েকজনের সঙ্গে তার ‘ধস্তাধস্তি’ হয়। এ ঘটনার কিছুক্ষণ পরেই খাসোগির মৃত্যু হয়।

জামাল খাসোগিকে হত্যার সঙ্গে জড়িত থাকার অভিযোগে সৌদির উপ-গোয়েন্দা প্রধান আহমাদ আল-আসিরি এবং ক্রাউন প্রিন্স মোহাম্মাদ বিন সালমানের জ্যেষ্ঠ নিরাপত্তারক্ষী সৌদ আল কাহতানিকে বহিষ্কার করা হয়েছে।

যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড বলেন, এ হত্যাকাণ্ড অগ্রণযোগ্য। তবে সৌদি আরব আমাদের অনেক বড় বন্ধু।

গত ২ অক্টোবর ইস্তাম্বুলের সৌদি কনস্যুলেটে প্রবেশের পর থেকেই রাজপরিবারের নীতির কট্টর সমালোচক খাসোগির কোনো হদিস পাওয়া যাচ্ছিলো না।সৌদি গুপ্তচররা কনস্যুলেটের ভেতরেই নির্যাতন ও হত্যার পর লাশ গুম করে ফেলেছে বলে অভিযোগ করে তুরস্ক। তবে রিয়াদ এ অভিযোগ বারবার অস্বীকার করেছে।

সৌদি রাজপরিবারে নীতির সামালোচনার কারণে প্রাণভয়ে প্রায় এক বছর আগে যুক্তরাষ্ট্রে স্বেচ্ছা নির্বাসনে যান তিনি। এরপর গত ২ অক্টোবর তুর্কি বাগদত্তা হেতিস চেঙ্গিসকে বিয়ে করতে প্রয়োজনীয় কাগজপত্র জোগাড় করতে ইস্তাম্বুলের সৌদি কনস্যুলেটে ঢুকেছিলেন জামাল খাসোগি। এ সময় চেঙ্গিস কনস্যুলেট ভবনের বাইরে অপেক্ষা করছিলেন। নয় ঘণ্টা অপেক্ষার পরও খাসোগি কনস্যুলেট থেকে বের না হলে তুর্কি কর্তৃপক্ষের কাছে অভিযোগ করেন হেতিস।