দুর্দান্ত ইমরুলে ২৭১ রান বাংলাদেশের


75 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
দুর্দান্ত ইমরুলে ২৭১ রান বাংলাদেশের
অক্টোবর ২১, ২০১৮ খেলা ফটো গ্যালারি
Print Friendly, PDF & Email

অনলাইন ডেস্ক ::
জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে সেঞ্চুরির পথে ইমরুলের খেলা একটি শট; মিরপুর, ঢাকা

পৃথিবীর আলো দেখা সন্তানকে দারুণ এক উপহার দিলেন বাংলাদেশ ওপেনার ইমরুল কায়েস। দুর্দান্ত এক সেঞ্চুরির পরে নবজাতককে কোলে নিয়ে দোল দেওয়ার মতো করে উদযাপন করলেন তিনি। তার ক্যারিয়ার সেরা ১৪৪ রানের ইনিংসে বাংলাদেশ শুরুর ধাক্কা সামলে ২৭১ রানের ভালো সংগ্রহ পেয়েছে। এছাড়া আট মাস পরে দলে ফেরা সাইফউদ্দিন করেছেন দারুণ এক ফিফটি।

জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে টস জিতে ব্যাট করতে নেমে শুরুতেই ধাক্কা খায় বাংলাদেশ। লিটন দাস এবং ফজলে রাব্বি ফিরে যান শুরুতে। সেই চাপ সামলে উঠতেই ফেরেন মুশফিকও। এরপর ইমরুল-মিঠুনের ব্যাটে গুছিয়ে নেয় বাংলাদেশ। তারপর আবার মিঠুন-মাহমুদুল্লাহ ও মেহেদি দুই রানের ব্যবধানে সাজঘরে ফেরেন। বাংলাদেশ ১৩৯ রানে ৬ উইকেট হারানোর পর অন্য প্রান্তে ইমরুলে কায়েস একাই লড়ে যান। তিনি ১৪০ বলে খেলেছেন ১৪৪ রানের চোখ ধাঁধাঁনো ইনিংস। বাংলাদেশ ভক্তদের আফসোস শেষের দিকে ঝড় তোলা ইমরুলের দেড়শ’ রান না পাওয়া।

এর আগে ওপেনার লিটন দাস ১৪ বলে মাত্র ৪ রান করে ফিরে যান। দলের রান তখন ১৬। এরপর তিনে অভিষেক হওয়া ফজলে রাব্বি দলের ১৭ রানে ব্যক্তিগত শূন্য রানে ফেরেন। ইমরুল এবং মুশফিক এরপর গড়েন ৪৯ রানের জুটি। সেট হয়ে ২০ বলে ১৫ রান করে টেলরকে ক্যাচ দেন মুশফিক। দলের রান তখন ৬৬। পরে মিঠুন ৪০ বলে তিন ছয় এবং এক চারে ৩৭ রান করেন। তিনি ফিরতেই চাপে পড়ে বাংলাদেশ। একে একে ফিরে যান মাহমুদুল্লাহ এবং মেহেদি মিরাজ।

সেখান থেকে সপ্তম উইকেট জুটিতে ১২৭ রানের জুটি গড়েন ইমরুল এবং দলে ফেরা পেস অলরাউন্ডার সাইফউদ্দিন। ইমরুল ১৩ চারে এবং ছয়টি ছক্কায় নিজের ১৪৪ রানে ক্যাচ দিয়ে ফেরেন। ৬৯ বলে ৫০ করে আউট হন সাইফউদ্দিন। বাংলাদেশ নির্ধারিত ৫০ওভারে ৮ উইকেট হারিয়ে ২৭১ রান তুলতে পারে। জয়ের জন্য জিম্বাবুয়েকে করতে হবে ২৭২ রান। জিম্বাবুয়ের হয়ে জারভিস ৪ উইকেট এবং ছাতারা ৩ উইকেট নেন।

জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে মিরপুর শেরে বাংলা জাতীয় স্টেডিয়ামে বাংলাদেশ প্রথম ম্যাচ খেলেছিল সেই ২০০৬ সালে। এরপর দল দুটি নিয়মিতই ঢাকার এই মাঠে খেলতে নেমেছে। তবে ২০১০ সালের পর জিম্বাবুয়ে এই মাঠে বাংলাদেশের বিপক্ষে জিততে পারেনি। তিন ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজের প্রথম ম্যাচেও শুরুতে ধাক্কা খায় জিম্বাবুয়ে। কারণ মিরপুরে শুরুতে ব্যাট করা দলের জয়ের সুযোগ থাকে বেশি। বাংলাদেশের হয়ে এ ম্যাচে অভিষেক হয়েছে ফজলে রাব্বির।

বাংলাদেশ একাদশ: লিটন দাস, ইমরুল কায়েস, ফজলে রাব্বি, মুশফিকুর রহিম, মোহাম্মদ মিঠুন, মাহমুদুল্লাহ, সাইফউদ্দিন, মেহেদি মিরাজ, মাশরাফি মর্তুজা (অধি.), মুস্তাফিজুর রহমান, নাজমুল ইসলাম অপু।

জিম্বাবুয়ে একাদশ: হ্যামিলটন মাসাকাদজা (অধি.), ক্যাপহাস জহুয়া, ক্রেগ আরভিন, ব্রেন্ডন টেলর, শেন উইলিয়ামস, সিকান্ডার রাজা, পিটার মুর, কাইল জারভিস, ব্রেন্ডন মাভুত, ডোনাল্ড ট্রিপানো, টেন্ডি সাতারা।